Left-Congress: শিলিগুড়িতে কংগ্রেসের সাথে জোটে জট, একাধিক আসনে একলা চলো নীতি বামফ্রন্টের
শিলিগুড়িতে বাম-কংগ্রেস আসন সমঝোতায় তৈরি হয়েছে জটছবি প্রতীকী সংগৃহীত

Left-Congress: শিলিগুড়িতে কংগ্রেসের সাথে জোটে জট, একাধিক আসনে একলা চলো নীতি বামফ্রন্টের

আসন সমঝোতার কথা মাথায় রেখে ২০১৫-তে কংগ্রেসের জেতা ৭, ১৬, ২১ ও ২৫ নং ওয়ার্ডে প্রার্থী দেয়নি বামেরা। তবে বামেদের জেতা আসন - ৩, ৫, ১২, ১৪, ১৫, ২২, ২৬, ৩৩, ৩৯ ও ৪২ আসনে প্রার্থী দিয়েছে কংগ্রেস।

শিলিগুড়িতে বাম-কংগ্রেস আসন সমঝোতায় তৈরি হয়েছে জট। শিলিগুড়ি পুরনির্বাচনে ৪৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৫টি ওয়ার্ডে বৃহস্পতিবার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে কংগ্রেস। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে বামেরা আগেই প্রার্থী ঘোষণা করেছিল। অর্থাৎ একাধিক ওয়ার্ডে লড়াই চতুর্মুখী। তৃণমূল-বিজেপির পাশাপাশি বাম কংগ্রেস লড়বে সমানে সমানে।

আসন সমঝোতার কথা মাথায় রেখে ২০১৫-তে কংগ্রেসের জেতা ৭, ১৬, ২১ ও ২৫ নং ওয়ার্ডে প্রার্থী দেয়নি বামেরা। তবে বামেদের জেতা আসন - ৩, ৫, ১২, ১৪, ১৫, ২২, ২৬, ৩৩, ৩৯ ও ৪২ আসনে প্রার্থী দিয়েছে কংগ্রেস। অর্থাৎ এই ১০টি আসনে মুখোমুখি লড়ছে বাম ও কংগ্রেস। এছাড়াও বামেদের প্রার্থী ঘোষণা করা ৪০ এবং ৪১ নম্বর ওয়ার্ডেও প্রার্থী ঘোষণা করেছে কংগ্রেস।

আরও তাৎপর্যের বিষয় হল, ২৬ নং ওয়ার্ডে গতবার বামেরা জিতেছিল। এবারও তারা প্রার্থী দিয়েছে। এই ওয়ার্ড থেকেই কংগ্রসের প্রার্থী হয়েছেন জেলা সভাপতি শঙ্কর মালাকারের মেয়ে।

এদিকে ৪৫ নং ওয়ার্ডে বামেরা প্রার্থী বদল করেছে। এই ওয়ার্ডে প্রার্থী করা হয়েছিল মুকুল সেনগুপ্তকে। পরে তাঁকে ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী করা হয়। ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী হচ্ছেন বিদায়ী কাউন্সিলর মুন্সি নুরুল ইসলাম। ২০১৫ সালে কংগ্রেসের জয়ী হওয়া ৭ নং ওয়ার্ডে বাম এবং কংগ্রেস কেউই প্রার্থী দেয়নি। সেখানকার বিদায়ী কংগ্রেস কাউন্সিলর যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। সমঝোতা রক্ষায় বামেরা প্রার্থী দেয়নি।

তবে শংকর মালাকারের দাবি, আসন সমঝোতা নিয়ে আলোচনা চলছে। আগামী ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত আলোচনার রাস্তা খোলা থাকছে।

কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতায় জট রয়েছে, তা মেনে নিয়েছেন সিপিআইএম নেতা তথা শিলিগুড়ির প্রাক্তন মেয়র অশোক ভট্টাচার্যও। তবে সমঝোতা ভেঙে যাচ্ছে, এমনটা মনে করছেন না তিনি।

এখনই হতাশ হতে নারাজ দু'পক্ষই। বাম ও কংগ্রেসের ফের বৈঠকে বসার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। যদিও তার আগে দলীয় শরিকদের সাথে আলোচনায় বসবে বামেরা।

প্রসঙ্গত, এবারে শিলিগুড়ি পুরভোটে এখনও পর্যন্ত কনিষ্ঠতম প্রার্থী হয়েছেন সুরজ কুন্ডু। বছর চব্বিশের সুরজ ১০ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিআইএম প্রার্থী। অশোক ভট্টাচার্যের কথাতেই তাঁর প্রার্থী হওয়া। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্র সুরজের অবসর কাটে ছাত্র পড়িয়ে। মানুষের পাশে থাকাই লক্ষ্য সৌরভ গাঙ্গুলির ভক্ত সুরজের।

শিলিগুড়িতে বাম-কংগ্রেস আসন সমঝোতায় তৈরি হয়েছে জট
CPIM: ক্ষমতালোভী নই, তাই সিপিআইএম করি - শিলিগুড়ির বাম প্রার্থীর দৃপ্ত ঘোষণা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in