বিজেপি শাসিত রাজ্যে করোনা বিশেষ নেই, অ-বিজেপি রাজ্যেই বেশি সংক্রমণ, দাবি দিলীপ ঘোষের

প্রশ্ন উঠছে, কেন পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন পিছিয়ে দিচ্ছে না বিজেপি! দিলীপ ঘোষের যুক্তি, কিন্তু বিজেপি শাসিত রাজ্যে করোনা বিশেষ নেই। বিরোধী রাজ্যে করোনা বাড়ছে।
দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষফাইল ছবি

করোনা সংক্রমণ বাড়ছে কোথায়? অ-বিজেপি রাজ্যে বেশি কোভিড সংক্রমণ হচ্ছে। নতুন তত্ত্ব খাড়া করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। অবশ্যই রাজনৈতিক তত্ত্ব। তার সঙ্গে স্বাস্থ্যবিজ্ঞানের কোনও সম্পর্ক আছে কিনা, তা তর্কের বিষয় বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

কী প্রসঙ্গে দিলীপের এই নিদান? রাজ্যে বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে পুরভোটের বাকি পর্ব পিছিয়ে দেওয়ার পক্ষে মতপ্রকাশ করেছিল বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। এদিকে, কিছুটা সুর বদলে এদিন খোদ তৃণমূলের সর্বসাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায় ভোট পিছিয়ে দেওয়ার কথা শোনা গিয়েছে। তার প্রেক্ষিতে কটাক্ষ করে দিলীপের মন্তব্য, তৃণমূল সব বন্ধ রাখছে, ভোট বন্ধ করছে না!

স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, কেন পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন পিছিয়ে দিচ্ছে না বিজেপি! দিলীপ ঘোষের যুক্তি, কিন্তু বিজেপি শাসিত রাজ্যে করোনা বিশেষ নেই। বিরোধী রাজ্যে করোনা বাড়ছে। তারা ভোট পিছোতে চাইছে। পশ্চিমবঙ্গ, মহারাষ্ট্র, দিল্লিতে করোনা বাড়ছে। কিন্তু উত্তরপ্রদেশে করোনা কম।

পুরভোট পিছনো প্রসঙ্গে শনিবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘হাইকোর্টে মামলা চলছে। আমার মন্তব্য করা উচিৎ নয়। নির্বাচন কমিশন সেই গাইডলাইনগুলো মেনে ভোট করাবে। আমার ব্যক্তিগত মত, আগামী ২ মাস সব বন্ধ রাখা উচিৎ।'

এনিয়ে দিলীপের মন্তব্য, 'আমরাও চাই বন্ধ থাকুক। অভিষেক না চাইলে তৃণমূল চায় কী করে!' বিজেপি নেতার কটাক্ষ, 'তিনি (অভিষেক) লোক খুশি করতে বলছেন। ভোট কাকে নিয়ে হবে, কেউ লিফলেট নিতে চান না। কলকাতায় ভোটে লাইন না হলেও ভোট পড়ছে।' বিধাননগরেও এভাবেই ভোট হবে বলে কটাক্ষ করেন তিনি।

দিলীপ ঘোষ
প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়কের বাড়িতে দিলীপ, জাগো বাংলা'তেও দিলীপের পক্ষে সওয়াল, জল্পনা তুঙ্গে

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in