৯ বছরে ২.৫ গুণ বৃদ্ধি, প্রতি ভারতীয়র মাথাপিছু দেনার পরিমাণ বেড়ে লক্ষাধিক টাকা - কংগ্রেস

কংগ্রেস মুখপাত্র গৌরব বল্লভ অভিযোগ করেন, ভারত সরকারের মোট বকেয়া ঋণ, যা ৩১ মার্চ, ২০১৪ তারিখে ৫৫.৮৭ লক্ষ কোটি ছিল, তা ৩১ মার্চ, ২০২৩ সালের মধ্যে ১৫৫.৩১ লক্ষ কোটি টাকায় পৌঁছে যাবে বলে অনুমান।
ছবি প্রতীকী
ছবি প্রতীকীগ্রাফিক্স - আকাশ

গত ৯ বছরে প্রতি ভারতীয়র মাথাপিছু ঋণ ৪৩,১২৪ টাকা থেকে বেড়ে ১,০৯,৩৭৩ টাকা হয়েছে এবং ২০১৪ সালের তুলনায় এই ঋণের পরিমাণ বেড়েছে ২.৫৩ গুণ। রবিবার নয়াদিল্লীতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানিয়েছেন কংগ্রেস মুখপাত্র গৌরব বল্লভ।

কংগ্রেসের মুখপাত্র গৌরব বল্লভ অভিযোগ করেন, ভারত সরকারের মোট বকেয়া ঋণ, যা ৩১ মার্চ, ২০১৪ তারিখে ৫৫.৮৭ লক্ষ কোটি ছিল, সেই ঋণ ৩১ মার্চ, ২০২৩ সালের মধ্যে ১৫৫.৩১ লক্ষ কোটি টাকায় পৌঁছে যাবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

কংগ্রেস মুখপাত্র বলেন, "২০২৩ সালের আর্থিক বছরের শেষ নাগাদ, প্রত্যেক ভারতীয়ের মাথাপিছু ঋণের পরিমাণ হবে ১,০৯.৩৭৩ টাকা। যা ঋণ তাঁরা কখনও নেয়নি। ১৯৪৭ সাল থেকে ৩১ মার্চ, ২০১৪ পর্যন্ত, ভারতীয় প্রতি ঋণ ছিল ৪৩,১২৪ টাকা। কিন্তু গত ৯ বছরে, ২০১৪ সালের তুলনায় প্রতি ভারতীয়র মাথাপিছু ঋণ ২.৫৩ গুণ বেড়েছে। নিখুঁতভাবে, গত নয় বছরে ভারতীয় প্রতি ঋণ ৬৬,২৪৯ টাকা বেড়েছে।"

বল্লভ বলেন, "২০২২ সালের আইএমএফ-এর তথ্য অনুসারে অনুসারে, জিডিপি-তে আমাদের ঋণ ছিল ৮৩ শতাংশ। যা আমাদের সমবয়সীদের, উদীয়মান বাজার এবং উন্নয়নশীল অর্থনীতির (EMDEs) থেকে অনেক উপরে, যাদের গড় ঋণ ৬৪.৫ শতাংশ৷

"রিপোর্ট অনুসারে, ভারতের সবচেয়ে ধনী ৫ শতাংশ এখন দেশের মোট সম্পদের ৬০ শতাংশেরও বেশির অধিকারী, যেখানে জনসংখ্যার নীচের অর্ধেক (৫০ শতাংশ) একত্রে সম্পদের মাত্র ৩ শতাংশ ভাগ করে নেয়।

"অন্যদিকে, পণ্য ও পরিষেবা করের (জিএসটি) মোট ১৪.৮৩ লক্ষ কোটি টাকার ৬৪ শতাংশ জনসংখ্যার নীচের ৫০ শতাংশ থেকে এসেছে, যেখানে শীর্ষ ১০ শতাংশ থেকে জিএসটি এসেছে মাত্র ৩ শতাংশ।

"সুতরাং, উপরোক্ত ঋণ শুধুমাত্র কে-আকৃতির (K-Shaped) পুনরুদ্ধারে সাহায্য করছে, যেখানে কিছু ক্ষেত্র ভালো করলেও অন্য ক্ষেত্রগুলো করতে পারেনি। মহামারীর ফলে মধ্য ও নিম্ন আয়ের গোষ্ঠী এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প খুবই ধাক্কা খেয়েছে। ফলস্বরূপ, প্রাইভেট ফাইনাল কনজামসান এক্সপেন্ডিচার (PFCE*) ২০২২-২০২৩ আর্থিক বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকের ২৫.৯ শতাংশের তুলনায় দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে ৯.৭ শতাংশে নেমে এসেছে।”

কংগ্রেসের প্রশ্ন, "কেন প্রতি ভারতীয়র মাথাপিছু ঋণ ৪৩,১২৪ টাকা থেকে বেড়ে ১,০৯,৩৭৩ টাকা হয়েছে? কেন এই ঋণ গত ৯ বছরে ২.৫৩ গুণ বাড়লো? ১৯৪৭ থেকে ৩১ মার্চ, ২০১৪ পর্যন্ত ভারত সরকারের মোট ঋণ ছিল ৫৫.৮৭ লক্ষ কোটি টাকা। গত ৯ বছরে কেন তা ২.৭৭ গুণ বেড়ে ১৫৫.৩১ লক্ষ কোটি টাকা হল?

কংগ্রেসের আরও প্রশ্ন, "কে-আকৃতির পুনরুদ্ধারের জন্য কেন অর্থ ধার করতে হবে, যেখানে ৫০ শতাংশ জনসংখ্যার মাত্র ৩ শতাংশের মালিক? এঁদেরই কেন মোট সম্পদ এবং শেষ পর্যন্ত সংগৃহীত জিএসটি-র ৬৪ শতাংশ পরিশোধ করতে হবে?"

- with inputs from IANS

আরও পড়ুন

ছবি প্রতীকী
কোনটা ‘ভুয়ো খবর’ তা নির্ধারণের ক্ষমতা একমাত্র কেন্দ্র বা PIB-র কাছে থাকতে পারে না: এডিটরস গিল্ড
ছবি প্রতীকী
যোশীমঠের মতো পরিণতি হতে পারে দার্জিলিং-কালিম্পংয়ের! কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in