পারলো না IIT, টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাঙ্কিং-এ শীর্ষস্থান দখল করল কোন ইউনিভার্সিটি?

ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে শূলিনি ইউনিভার্সিটি অফ বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সেস। সামগ্রিকভাবে যাদের র‍্যাঙ্কিং রয়েছে ৩৫১-৪০০ মধ্যে।
THE-র সর্বশেষ রিপোর্টে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স
THE-র সর্বশেষ রিপোর্টে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্সগ্রাফিক্স - নিজস্ব

টাইমস হায়ার এডুকেশন (THE) র‍্যাঙ্কিং-র সর্বশেষ রিপোর্টে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স (IISc)। স্বচ্ছ ভাবমূর্তির ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রশ্ন ওঠায় পরপর তিন বছর এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিকে বেশিরভাগ ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি (আইআইটি) বয়কট করেছে।

THE-র একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারতের মধ্যে প্রথম হলেও সামগ্রিকভাবে আইআইএসসি-র র‍্যাঙ্ক ২৫১-৩০০ মধ্যে। যেখানে, সমগ্র বিশ্বব্যাপী ১,৭৯৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সেরা ইনস্টিটিউট হিসাবে আবির্ভূত হয়েছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। THE-র মুখপাত্র ভারতীয় একটি সংবাদ সংস্থায় জানিয়েছেন, চলতি বছরের র‍্যাঙ্কিং-এ নাম রয়েছে আইআইটি-র ৮টি প্রতিষ্ঠানের।

র‍্যাঙ্কিং-এ ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে দ্বিতীয় শূলিনি ইউনিভার্সিটি অফ বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সেস। সামগ্রিকভাবে যার র‍্যাঙ্কিং ৩৫১-৪০০ মধ্যে। হিমাচল প্রদেশের এই বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০২২ সালের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউশনাল র‍্যাঙ্কিং ফ্রেমওয়ার্ক (NIRF)-র বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগে ৯৬ তম স্থান অর্জন করেছে।

শূলিনি ইউনিভার্সিটির সাথেই ওই র‍্যাঙ্কিং-এর মধ্যেই ভারতের আর একটি ইউনিভার্সিটি রয়েছে - কর্ণাটকের জেএসএস একাডেমি অফ হায়ার এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ। র‍্যাঙ্কিং তালিকায় এরপর যে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে তা হলো তামিলনাড়ুর আলগাপ্পা বিশ্ববিদ্যালয়। সামগ্রিকভাবে যাদের র‍্যাঙ্ক ৪০১-৫০০-এর মধ্যে।

গত বছর ভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছিল আইআইটি রোপার। যেটি এই বছরের রিপোর্ট অনুযায়ী ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। গত বছর বিশ্বব্যাপী এদের র‍্যাঙ্ক ছিল ৩৫১-৪০০ এর মধ্যে। চলতি বছর তা ৫০১-৬০০ তে নেমে গেছে। র‍্যাঙ্কিং-এ অংশ নেওয়া অন্যান্য আইআইটি প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে ৬০১-৮০০ মধ্যে রয়েছে আইআইটি ইন্দোর। তারপর রয়েছে আইআইটি পাটনা এবং আইআইটি গান্ধীনগর (৮০১-১০০০)।

কতগুলি আইআইটি প্রতিষ্ঠান র‍্যাঙ্কিং-এ অংশ নিয়েছিল তা এখনও স্পষ্ট ভাবে জানা যায়নি। পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ হলে জানা যাবে। যে প্যারামিটারগুলির উপর ভিত্তি করে ইনস্টিটিউটগুলিকে স্থান দেওয়া হয়েছে তা হল: শিক্ষা (৩০%), গবেষণা (৩০%), উদ্ধৃতি (৩০%), আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গি (৭.৫%), এবং ইন্ডাস্ট্রি আউটকাম (২.৫%)। আশ্চর্যজনকভাবে, স্বচ্ছ ভাবমূর্তি বজায় না রাখার কারণে র‍্যাঙ্কিং-এ নাম নেই আইআইটি দিল্লি এবং আইআইটি বম্বের।

THE-র সর্বশেষ রিপোর্টে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স
'গোপনে' শিল্পপতিদের ১.২৯ লক্ষ কোটির ঋণ মকুব কানাড়া ব্যাঙ্কের! নয়া কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে
THE-র সর্বশেষ রিপোর্টে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স
এবার নৈহাটি স্টেশনে টাকার পাহাড় - ধৃত যুবকের কাছ থেকে উদ্ধার ছেঁড়া নোট, কোনও সংকেত? তদন্তে পুলিশ
THE-র সর্বশেষ রিপোর্টে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স
৬৬ শিশু মৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত ওষুধ কোম্পানির উৎপাদন বন্ধ করতে এত দেরী! প্রশ্নের মুখে হরিয়ানা সরকার

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in