Lay Off: ৫০ শতাংশ কর্মী ছাঁটাইয়ের পর ট্যুইটারে এবার কাজ হারালেন ৪,৪০০ চুক্তিভিত্তিক কর্মী

প্ল্যাটফর্মারের কেসি নিউটন ট্যুইট করে জানিয়েছেন, "চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের বিষয়টি সম্পর্কে জানানোই হচ্ছে না। তাঁদের কাছ থেকে স্ল্যাক এবং ইমেলের অ্যাক্সেস কেড়ে নেওয়া হচ্ছে।
এলন মাস্ক
এলন মাস্কফাইল ছবি সংগৃহীত

ট্যুইটারের প্রায় ৫০ শতাংশ কর্মী বা প্রায় ৩,৮০০ কর্মচারীকে বরখাস্ত করার পর, এলন মাস্ক তাঁর কোম্পানিতে কমপক্ষে ৪,৪০০ চুক্তিভিত্তিক কর্মী ছাঁটাই করেছেন বলে জানা গেছে ।

প্ল্যাটফর্মার এবং অ্যাক্সিওসের রিপোর্ট অনুসারে, মাইক্রো-ব্লগিং প্ল্যাটফর্মে এখন চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীদের ছাঁটাই করা চলছে।

প্ল্যাটফর্মারের কেসি নিউটন ট্যুইট করে জানিয়েছেন, "চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের বিষয়টি সম্পর্কে জানানোই হচ্ছে না। তাঁদের কাছ থেকে স্ল্যাক এবং ইমেলের অ্যাক্সেস কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। সিস্টেম থেকে কর্মীদের অদৃশ্য হয়ে যাওয়ার পর ম্যানেজাররা বিষয়টি জানতে পারেন। তিনি ট্যুইট করে জানিয়েছেন, "তাঁরা তাদের টিম লিডারদের কাছ থেকে কিছুই জানতে পারেননি।”

সপ্তাহান্তে শুরু হওয়া ছাঁটাইয়ের নতুন ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মাস্ক বা ট্যুইটার কেউই কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

অনেকেই ট্যুইটারের অভ্যন্তরীণ সিস্টেমে হঠাৎ অ্যাক্সেস হারিয়ে ফেলার পরে জানতে পেরেছেন যে তারা তারা আর কোম্পানির কর্মী নন।

কোম্পানির অভ্যন্তরীণ স্ল্যাক মেসেজিং প্ল্যাটফর্মে একজন ম্যানেজার পোস্ট করে জানিয়েছেন, "আমাদের শিশু সুরক্ষা কর্মপ্রবাহে কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন করার মাঝখানে কোনো নোটিশ ছাড়াই আমার একজন কর্মীকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।"

Engadget-এর রিপোর্ট অনুসারে, ট্যুইটারের পূর্ববর্তী ছাঁটাইয়ের পরে, অনেক চুক্তিভিত্তিক কর্মী দলে পূর্ণ-সময়ের কর্মী ছাড়াই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এমনকি তাদের টাইম শীটে সাইন অফ করার জন্য কেউ থাকছে না।

(Only the headline and picture of this report may have been reworked by the People's Reporter staff; the rest of the content is auto-generated from a syndicated feed.)

এলন মাস্ক
Lay Off: ভারতে ২০০ জনের বেশি, বিশ্বজুড়ে ৫০ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই ট্যুইটারে
এলন মাস্ক
Lay Off: সময়সীমা ১ নভেম্বর, Twitter থেকে গণহারে কর্মী ছাঁটাইয়ের নির্দেশ এলন মাস্কের!
এলন মাস্ক
Lay Off: টুইটার অধিগ্রহণের পরেই কর্মী ছাঁটাই এলন মাস্কের, বাদ পড়লেন CEO পরাগ আগারওয়াল!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in