Cancer: ২০১৯ সালে বিশ্বে ক্যানসারে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ২০.৯ এবং ২৬.৩ শতাংশ

২০১৯ সালে বিশ্বজুড়ে ক্যানসারের কারণে মৃত্যু হয়েছে ১ কোটি মানুষের। এই বছরেই নতুন করে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ। সম্প্রতি এক সমীক্ষায় এই তথ্য উঠে এসেছে।
Cancer: ২০১৯ সালে বিশ্বে ক্যানসারে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ২০.৯ এবং ২৬.৩ শতাংশ
ছবি প্রতীকীছবি সৌজন্য ক্যান্সারসেন্টার ডট কম

২০১৯ সালে বিশ্বজুড়ে ক্যানসারের কারণে মৃত্যু হয়েছে ১ কোটি মানুষের। এই বছরেই নতুন করে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ। সম্প্রতি এক সমীক্ষায় এই তথ্য উঠে এসেছে।

সম্প্রতি করা এই সমীক্ষার ফলাফল অনুসারে শুধুমাত্র ২০১৯ সালেই বিশ্বজুড়ে ক্যানসারে মৃত্যু এবং আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে যথাক্রমে ২০.৯ শতাংশ এবং ২৬.৩ শতাংশ। এই সমীক্ষা থেকে জানা গেছে ২০১০ সালে শেষ হওয়া দশকে ক্যানসারে মোট মৃত্যু সংখ্যা ছিলো প্রায় ৮৩ লক্ষ এবং ক্যানসার আক্রান্তের সংখ্যা ছিলো ১ কোটি ৮৭ লক্ষ। যা শুধুমাত্র ২০১৯ সালের পরিসংখ্যান অনুসারেই মাত্র এক বছরেই ছাড়িয়ে গেছে।

ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটন স্কুল অফ মেডিসিনের ইন্সটিটিউট অফ হেলথ মেট্রিক্স অ্যান্ড ইভ্যালুয়েশন (আইএইচএমই)-র পক্ষ থেকে গবেষক জোনাথন কোকারনিক জানাচ্ছেন ক্যানসার আক্রান্তর সংখ্যা দ্রুতহারে বাড়ছে, যা উদ্বেগজনক।

তিনি আরও জানিয়েছেন, "এর জন্য ক্যানসার প্রতিরোধ, চিকিৎসা এবং বেঁচে থাকার ক্ষেত্রে বৈষম্য কমানোর প্রচেষ্টার প্রয়োজন এবং স্থানীয় চাহিদা ও জ্ঞানকে জাতীয় ক্যান্সার নিয়ন্ত্রণ পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।"

জামা অঙ্কোলজি জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণা পত্রে গবেষকরা জানিয়েছেন বিশ্বের মোট ২০৪টি দেশ এবং সংলগ্ন অঞ্চলে ক্যানসার ক্রমবর্ধমান। ওই সমীক্ষা থেকেই জানা গেছে মৃত্যু সংখ্যার হিসাবে হৃদরোগের পরেই এখন ক্যানসারের স্থান।

মোট ক্যান্সার আক্রান্তদের মধ্যে, উভয় লিঙ্গের মিলিত ক্যান্সার-সম্পর্কিত DALY-এর (Disability Adjusted Life Years) পাঁচটি প্রধান কারণ হল শ্বাসনালী, ব্রঙ্কাস এবং ফুসফুসের (TBL) ক্যান্সার; কোলন এবং মলদ্বার ক্যান্সার; পাকস্থলীর ক্যান্সার; স্তন ক্যান্সার; এবং লিভার ক্যান্সার। ১১৯টি দেশ ও অঞ্চলে পুরুষদের জন্য এবং ২৭টি দেশ ও অঞ্চলে মহিলাদের জন্য টিবিএল ক্যান্সার মৃত্যুর প্রধান কারণ।

যদিও ২০১০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ক্যানসারে মৃত্যু এবং নতুন রোগ নির্ণয় উভয় ক্ষেত্রেই বৃদ্ধি পেয়েছে, কিন্তু বিশ্বব্যাপী বয়স-জনিত মৃত্যু এবং ঘটনার হার যথাক্রমে ৫.৯ শতাংশ এবং ১.১ শতাংশ কমেছে।

বিশ্বব্যাপী অতি কম শতাংশতে কমা আশাব্যঞ্জক হলেও গবেষকরা সতর্ক করেছেন যে কোভিড-১৯ এর কারণে ক্যান্সারের যত্ন এবং ফলাফলে বিপত্তি হতে পারে। এই GBD গবেষণায় ক্যান্সার রোগ, মৃত্যুহার, এবং প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ প্রচেষ্টার উপর মহামারীর প্রভাব বিবেচনা করা হয়নি। এই গবেষণায় শুধুমাত্র ২০১৯ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী ক্যান্সারের সংখ্যা বিশ্লেষণ করেছে।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

ছবি প্রতীকী
National Cancer Awareness Day: ভারতে ক্যান্সারের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে কেন?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in