WB Panchayat Polls: ভাঙড়ে ফের ভোটের বলি তৃণমূল কর্মী! শেষ ৩৮ দিনে মৃত বেড়ে ৫৪

শওকত মোল্লা বলেন, শান্ত ভাঙড়কে অশান্ত করছে নওশাদ সিদ্দিকি। সব দায় ওর। নওশাদের মদতে আইএসএফ-র দুষ্কৃতিরা তৃণমূল কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে।
WB Panchayat Polls: ভাঙড়ে ফের ভোটের বলি তৃণমূল কর্মী! শেষ ৩৮ দিনে মৃত বেড়ে ৫৪
প্রতীকী ছবি সংগৃহীত

দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ফের প্রাণ হারালেন দুই তৃণমূল কর্মী। অভিযোগের তির আইএসএফ আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। এই নিয়ে নির্বাচনী হিংসায় শেষ ৩৮ দিনে মৃত্যু হলো ৫৪ জনের।

শেখ মোসলেম নামে এক তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু হয়েছে ভাঙড়ে। নিহতের ভাইপোর অভিযোগ, আইএসএফ কর্মীরা তাঁর কাকাকে নির্বাচনের আগের দিন রাতে বেধড়ক মারধর করে। লাঠি, বাঁশ, ইট দিয়ে চড়াও হয় তাঁর ওপর। তাঁর কাকা ওই এলাকার তৃণমূলের বুথ সভাপতি ছিলেন। তাই তাঁকে (নিহত তৃণমূলের বুথ সভাপতি) সরিয়ে দিতে পারলে আইএসএফ জয়ী হবে। গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল মোসলেমকে। শনিবার সকালে মৃত্যু হয়েছে তাঁর।

এই ঘটনায় ক্যানিং পূর্বের বিধায়ক শওকত মোল্লা বলেন, "শান্ত ভাঙড়কে অশান্ত করছে নওশাদ সিদ্দিকি। সব দায় ওর। নওশাদের মদতে আইএসএফ-র দুষ্কৃতীরা তৃণমূল কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এর সাথে যুক্ত শুভেন্দু অধিকারীও। ও চাইছে ভাঙড়ে ৩৫৫ ধারা জারি করতে। ভাঙড়ে সন্ত্রাস ছড়ানোর দায় শুভেন্দুরও।"

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে নওশাদ সিদ্দিকি। তিনি বলেন, "শওকত বাবুরা ইচ্ছাকৃতভাবে আমাদের কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করছেন। তাঁদেরকে ঘরছাড়া করছেন। পুলিশ প্রশাসনকে বলবো, নিরপেক্ষ তদন্ত করলে সমস্তকিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে।"

অন্যদিকে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরে গুলি করে খুন কর হলো তৃণমূল কর্মী প্রলয় মণ্ডলকে। প্রাথমিকভাবে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে খুন মনে করা হলেও সেই দাবি উড়িয়েছে পরিবার। পরিবারের অভিযোগ, প্রোমোটিং বিবাদের জেরে খুন হতে হয়েছে ওই তৃণমূল কর্মীকে। শুক্রবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে প্রলয় মণ্ডলকে ঘির ধরে দুষ্কৃতিরা। তারপরই এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে থাকে।

WB Panchayat Polls: ভাঙড়ে ফের ভোটের বলি তৃণমূল কর্মী! শেষ ৩৮ দিনে মৃত বেড়ে ৫৪
Naushad Siddiqui: রাস্তা আটকালো পুলিশ - ‘অশান্ত’ ভাঙড়ে ঢুকতে অনড় নওশাদ সিদ্দিকি
WB Panchayat Polls: ভাঙড়ে ফের ভোটের বলি তৃণমূল কর্মী! শেষ ৩৮ দিনে মৃত বেড়ে ৫৪
রাস্তায় ছড়াছড়ি ব্যালট পেপার! জাঙ্গিপাড়ার ঘটনায় বিডিওকে তলব কলকাতা হাইকোর্টের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in