Red Volunteers: কলকাতার পর এবার পশ্চিম মেদিনীপুরে ‘টেলি মেডিসিন’ পরিষেবা চালু করল SFI
ছবি- SFI পশ্চিম মেদিনীপুর

Red Volunteers: কলকাতার পর এবার পশ্চিম মেদিনীপুরে ‘টেলি মেডিসিন’ পরিষেবা চালু করল SFI

বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই উদ্যোগে মোট ১৪ জন চিকিৎককে নিয়ে পশ্চিম মেদিনীপুরে চালু হল এই পরিষেবা। ফোন করলেই মিলবে ডাক্তারদের পরামর্শ।

রাজনৈতিক পরিচয়ে তারা বামপন্থী। আপামর বাঙালির কাছে তারা ‘রেড ভলান্টিয়ার’ নামেই পরিচিত। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বাংলা যখন বিপর্যস্ত, তখন এই যুবদলই বাংলায় ত্রাতা হয়ে উঠেছিল। যে কোনও প্রয়োজনে ডাকলেই ঘরের দরজায় হাজির হত তারা।

কেউ চিকিৎসা পাচ্ছেন না, কেউ খাবার পাচ্ছেন না তো কেউ আবার ওষুধ কিনতে পারছেন না। নিজেদের সাধ্যমত পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে তারা। রেড ভলান্টিয়ারদের ‘কমিউনিটি কিচেন’ খাবার জুগিয়েছে রাজের বিভিন্ন প্রান্তে।

এবার তাঁরাই করোনা আক্রান্তদের জন্য নিয়ে এলেন ‘টেলি মেডিসিন’ পরিষেবা। উদ্যোগ বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই-এর। মোট ১৪ জন চিকিৎককে নিয়ে পশ্চিম মেদিনীপুরে চালু হল এই ব্যবস্থা। ফোন করলেই মিলবে ডাক্তারদের পরামর্শ।

এখনও পর্যন্ত পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ৪৪ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তৃতীয় ঢেউয়ের করোনা সংক্রমণ বেশিরভাগটাই উপসর্গহীন। জ্বর-সর্দি--কাশি, যা অনেকাংশেই আবহাওয়ার পরিবর্তনের জেরে হামেশাই হয়ে থাকে। ফলে সমস্যা আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ইতিমধ্যেই রেড ভলান্টিয়ারদের তরফে খোলা হয়েছে টেলি-মেডিসিন। এতে যুক্ত হয়েছেন রাজ্যের একাধিক চিকিৎসক। চালু করা হয়েছে বেশ কয়েকটি হেল্পলাইন নম্বরও। তাতে ফোন করলে সপ্তাহের ৭ দিন নির্দিষ্ট সময়ে মৌখিক চিকিৎসা পরিষেবা পাবেন করোনা আক্রান্তরা।

আগে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের টেলিমেডিসিন পরিষেবা চালু করেছিল। কিন্তু এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, সরকারি হেল্প লাইন নম্বরে ফোন করে সাহায্য পেতে অনেক দেরি হয়ে যেত। সোমবার থেকেই পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাতে চালু করা হয়েছে এই পরিষেবা।

ছবি- SFI পশ্চিম মেদিনীপুর

গোটা বিষয় নিয়ে এসএফআইয়ের জেলা সম্পাদক প্রসেনজিৎ মুদি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে থাকতেই এমন পরিষেবার কথা ভাবা হয়েছে। সাধারণ মানুষের পাশে যত রকম ভাবে দাঁড়ানো সম্ভব হবে, আমরা দাঁড়াব।‘ প্রয়োজনে চিকিৎসকের সংখ্যা বাড়ানো হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এসএফআই এর উদ্যোগে কলকাতাতেও টেলি-মেডিসিন পরিষেবা চালু হয়েছে। এসএফআই নেতৃত্ত্বের কথায় - 'কলকাতা মেডিক্যাল লোকাল কমিটি'র টেলি-মেডিসিন পরিষেবায় মোট ২৫ জন চিকিৎসক যুক্ত হয়েছেন। এই তালিকায় আছেন জেনারেল ফিজিশিয়ান, শিশু বিশেষজ্ঞ, গায়নোকোলজিস্ট- সহ আরও অনেক চিকিৎসক।

Red Volunteers: কলকাতার পর এবার পশ্চিম মেদিনীপুরে ‘টেলি মেডিসিন’ পরিষেবা চালু করল SFI
SFI: লাগামছাড়া সংক্রমণ, করোনা রোগীদের জন্য টেলি-মেডিসিন পরিষেবা চালু করল CPIM-র ছাত্র সংগঠন

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in