বামপন্থী যুব নেতাকে পরপর গুলি দুষ্কৃতীদের, প্রতিবাদে রাজ্য জুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি DYFI-র

মীনাক্ষী মুখার্জি বলেন, বাইরে থেকে লোক এসে বামপন্থী নেতাদেরকে খুন করার চেষ্টা করছে। এর উদ্দেশ্য একটাই মানুষের স্বার্থে যারা কাজ করছে তাদেরকে কাজ করতে দেওয়া হবে না।
গুলিবিদ্ধ কৃষ্ণপদ টুডু
গুলিবিদ্ধ কৃষ্ণপদ টুডুগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

দুষ্কৃতীদের হাতে পুরুলিয়ার যুব নেতা কৃষ্ণপদ টুডুর গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে বামেদের যুব সংগঠন DYFI। DYFI রাজ্য সম্পাদক মীনাক্ষী মুখার্জি একথা ঘোষণা করেন।

গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছে DYFI। শনিবার সাংবাদিকদের সামনে মীনাক্ষী মুখার্জি বলেন, "এই রাজ্যে মানুষ থাকবে নাকি গুন্ডা থাকবে? পুলিশ কোথায়? বাইরে থেকে লোক এসে বামপন্থী নেতাদেরকে খুন করার চেষ্টা করছে। এর উদ্দেশ্য একটাই, মানুষের স্বার্থে যারা কাজ করছে তাদেরকে কাজ করতে দেওয়া হবে না। গোটা রাজ্যে সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করেছিল। সেই ভয় উপেক্ষা করেই মানুষ এখন পথে নামছে। তাদেরকে আবার ভয় দেখানোর জন্যই আক্রমণ করছে শাসকদল।"

উল্লেখ্য, শুক্রবার পুরুলিয়ার বন্দোয়ানের কুঁচিয়াতে সিপিআই(এম) শাখা দপ্তরে মিটিং করে ফিরছিলেন কৃষ্ণপদ টুডু। সন্ধ্যে ৬টা নাগাদ এক ফাঁকা এলাকায় তাঁকে তিন জন দুষ্কৃতী গুলি করে বলে স্থানীয় সূত্রে খবর। তাঁর হাতে ও পিঠে গুলি লাগে। স্থানীয় বাসিন্দারাই গুলিবিদ্ধ যুবনেতাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। পরে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই নেতার অবস্থা এখন স্থিতিশীল।

ওই তিন দুষ্কৃতিকে গ্রামবাসীরা ধরে ফেলে। তিন জনকেই পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পুলিশ জানাচ্ছে, তিন জনের মধ্যে একজনের বাড়ি ঝাড়খণ্ডে, একজনের ঝাড়গ্রামে ও অন্য একজনের বান্দোয়ানের শিড়কায়। তবে কী উদ্দেশ্যে গুলি করা হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি।

গুলিবিদ্ধ কৃষ্ণপদ টুডু
TMC: 'দিদির দূত' কর্মসূচিতে গিয়ে ক্ষোভের মুখে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক সহ একাধিক তৃণমূল নেতা
গুলিবিদ্ধ কৃষ্ণপদ টুডু
'দিদির সুরক্ষা কবচ' কর্মসূচিতে বিক্ষোভের মুখে শতাব্দী! ছবি তুলেই উঠে গেলেন মাংস ভাত ফেলে

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in