বঙ্গ বিজেপিতে হোয়াটসঅ্যাপ বিদ্রোহ, এবার গ্রুপ ছাড়লেন খড়গপুরের বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়

কেউ কেউ বলছেন, হিরণের তৃণমূলে যোগ দেওয়া শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা। তাঁর সঙ্গে তৃণমূল নেতৃত্ব ইতিমধ্যেই যোগাযোগ শুরু করেছেন।
বঙ্গ বিজেপিতে হোয়াটসঅ্যাপ বিদ্রোহ, এবার গ্রুপ ছাড়লেন খড়গপুরের বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়
হিরণ চট্টোপাধ্যায়ফাইল চিত্র - সংগৃহীত

বিজেপির নতুন রাজ্য কমিটি ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়ার হিড়িক উঠেছে বঙ্গ বিজেপিতে। রাজ্য কমিটিতে পদ খুইয়ে আগেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছিলেন সায়ন্তন বসু এবং বিশ্বপ্রিয় চৌধুরী। তারপর হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন ‌পাঁচ মতুয়া বিধায়ক। তাঁদের অভিযোগ, রাজ্য কমিটিতে কোনও মতুয়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি নেই। বিজেপির সমস্ত হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে বেরিয়ে গেছেন কেন্দ্রীয় জাহাজ প্রতিমন্ত্রী তথা মতুয়া সাংসদ শান্তনু ঠাকুরও।

এবার বিজেপির হোয়াটঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন খড়গপুরের বিধায়ক তথা অভিনেতা হিরণ চট্টোপাধ্যায়। তবে কী কারণে তিনি গ্রুপ ছাড়লেন সেই বিষয়ে বিশেষ কিছু জানা যায়নি। তবে কী তিনি এবার ফুল বদল করবেন। শুরু হয়েছে জল্পনা।

প্রসঙ্গত, খড়গপুরে বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দল চরমে। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং হিরণের সম্পর্ক প্রায় আদায় কাঁচকলায়। কোনও দলীয় অনুষ্ঠানেই একসঙ্গে দেখা যায় না হিরন ও দিলীপকে। খড়গপুরে এই দুই নেতার অনুগামীরা এখন দুই শিবিরে ভাগ হয়ে গিয়েছেন। সম্প্রতি দলীয় কর্মসূচিতে হিরণের ছবি না থাকায় প্রকাশ্যে অসন্তোষের কথা জানিয়েছিলেন তিনি। খড়গপুরে পুরভোট সংক্রান্ত বৈঠকেও অনুপস্থিত ছিলেন তিনি।

রাজনৈতিক মহলের ধারণা, দিলীপ ঘোষের সঙ্গে মতপার্থক্যের জেরেই বিজেপি থেকে ক্রমশ দূরত্ব বাড়াচ্ছিলেন হিরণ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর হোয়াটঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে চলে যাওয়ার অন্যতম কারণ এটাই। কেউ কেউ বলছেন, হিরণের তৃণমূলে যোগ দেওয়া শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা। তাঁর সঙ্গে তৃণমূল নেতৃত্ব ইতিমধ্যেই যোগাযোগ শুরু করেছেন। এর আগেও একাধিকবার তাঁর দল ছাড়ার গুঞ্জন ছড়িয়েছে। অবশ্য প্রতিবারই তিনি বিজেপি ছাড়ার কথা অস্বীকার করেছেন।

হিরণ চট্টোপাধ্যায়
দিলীপ ঘোষের সাথে সম্পর্ক একেবারে তলানিতে! কৃষ্ণ কল্যাণীর পর এবার কি BJP ছাড়ছেন হিরণ?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in