DA মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য সরকার

শুক্রবার, কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চে এই সংক্রান্ত একটি হলফনামা পেশ করেন সরকার পক্ষের আইনজীবী।
DA মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য সরকার
DA মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য সরকারগ্রাফিক্স - নিজস্ব

সরকারি কর্মচারিদের বকেয়া মহার্ঘ্যভাতা (DA) নিয়ে পুজোর আগেই কলকাতা হাইকোর্টে ধাক্কা খেয়েছিল রাজ্য সরকার। মামলার রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ করে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের পক্ষেই রায় দিয়েছিল আদালত। এবার সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলো রাজ্য সরকার।

শুক্রবার, কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চে এই সংক্রান্ত একটি হলফনামা পেশ করেন সরকার পক্ষের আইনজীবী। আদালতে সরকার পক্ষের আইনজীবীর দাবি, আদালত অবমাননার মামলা গ্রহণযোগ্য নয়।

প্রসঙ্গত, গত ২০ মে ডিএ মামলার রায় দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। নির্দেশে বলা হয়, তিন মাসের মধ্যে সমস্ত বকেয়া পরিশোধ করতে হবে। সেই সময়সীমা শেষ হয়েছে গত ১৯ আগস্ট। নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে বকেয়া পরিশোধ না করায় ফের রাজ্যের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। সেই মামলার শুনানি ছিল গত ২২ সেপ্টেম্বর।

মামলা চলাকালীন, হাইকোর্টের রায় পুনর্বিবেচনা করার আর্জি জানায় রাজ্য। কিন্তু আদালত পূর্বের রায়ই বহাল রাখে। আদালত স্পষ্ট জানিয়েছে, রাজ্যের আবেদনের কোনও যৌক্তিকতা নেই। শুনানিতে কী ভুল আছে, তা খুঁজে বের করা আদালতের দায়িত্ব না। রাজ্যের দাবি অনুযায়ী 'ডিটেইলস এনকোয়ারির' কোনও প্রয়োজনীয়তা নেই।

প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল আগে থেকে, এবার উচ্চ আদালতের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে রাজ্য। আগামী সোমবার এই মামলার শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

DA মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য সরকার
SSC: ধর্নার ৬০০ দিন! আন্দোলনস্থলে বিমান বসু সহ বাম নেতৃত্ব, লেনিন মূর্তি থেকে মিছিল বামেদের
DA মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য সরকার
DA মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের রায়কে 'হাতিয়ার' করেই রাজ্যকে হুঁশিয়ারি সরকারি কর্মী সংগঠনের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in