Tamil Nadu: অনন্য নজির, দৃষ্টিহীন হয়েও CPIM-র জেলা সম্পাদক হলেন বিএস ভারতী

পেশায় উকিল বিএস ভারতী। কলেজে পড়ার সময় থেকেই সিপিআইএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআই-এর মাধ্যমেই রাজনীতিতে হাতেখড়ি তাঁর। চেন্নাইয়ের ডঃ আম্বেদকর গভর্নমেন্ট ল’ কলেজ থেকে আইনে স্নাতক হন।
Tamil Nadu: অনন্য নজির, দৃষ্টিহীন হয়েও CPIM-র জেলা সম্পাদক হলেন বিএস ভারতী
বিএস ভারতী ছবি - সংগৃহীত

এই প্রথমবার ইতিহাস তৈরি করে তামিলনাড়ুর জেলাস্তরের সম্পাদক হলেন দৃষ্টিহীন বিএস ভারতী আন্না। দেশীয় রাজনীতিতেও ইতিহাস তৈরি করল এই ঘটনা। সম্প্রতি তামিলনাড়ুর চেঙ্গলপাট্টু জেলার দলীয় সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তামিলনাড়ুর কোনও রাজনৈতিক দলেই এমন দৃষ্টান্ত নেই। সে অর্থে সিপিআইএম ওই সিদ্ধান্ত নিয়ে সে-রাজ্যের রাজনৈতিক ইতিহাসে একটি যুগান্তকারী কাজ করেছে। এমনটাই মনে করছেন দলের নেতা ও রাজনৈতিক মহল।

পেশায় উকিল বিএস ভারতী। তিনি কলেজে পড়ার সময় থেকেই সিপিআইএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআই-এর সমর্থক ছিলেন। এসএফআই-এর মাধ্যমেই রাজনীতিতে হাতেখড়ি তাঁর। চেন্নাইয়ের ডঃ আম্বেদকর গভর্নমেন্ট ল’ কলেজ থেকে আইনে স্নাতক হন। তারপর তিনি চেঙ্গলপাট্টুতে অনুশীলন শুরু করেন।

একইসঙ্গে দলের তামিলনাড়ু অস্পৃশ্যতা দূরীকরণ ফ্রন্টের সহকারী সম্পাদক হিসেবেও কাজ শুরু করেন সর্বত্র ‘ভারতী আন্না’ নামে পরিচিত ওই সিপিআইএম নেতা। ভারতী আন্না জানান, তিনি ‘তামিলনাড়ু অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য রাইটস অফ অল টাইপ্‌স অফ ডিফারেন্টলি এবল্‌ড অ্যান্ড কেয়ারগিভার্স’ সংগঠনের সহ-সভাপতি ছিলেন।

তাঁর কথায়, 'তিন বছর বয়স পর্যন্ত আমার দৃষ্টি ছিল। তারপর ধীরে ধীরে দৃষ্টিশক্তি কমতে শুরু করে। ২০১৪ সাল থেকে আমি আর একদমই দেখতে পাই না। দৃষ্টিহীন হওয়ার ফলে মানুষের পাশে থেকে কাজ করায় ব্যাঘাত ঘটে। আমি পদত্যাগ করি। বিষন্নতায় ভুগছিলাম। কিন্তু পরে আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে আমি ফের দলে যোগ দিই। শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য কাজ করতে শুরু করি।'

তাঁকে জেলা সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত করার জন্য ইতিমধ্যেই বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হয়েছে তামিলনাড়ুর সিপিআইএম নেতৃত্ব।

বিএস ভারতী
বিজেপি বিরোধী ঐক্য প্রধান লক্ষ্য, রাজ্যভিত্তিক পরিস্থিতির উপরেই নির্বাচনী সমঝোতা: CPIM

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in