Kerala: পার্টির আমাকে বহিষ্কার করার সমস্ত অধিকার আছে - জানালেন বহিষ্কৃত CPIM নেতা এস রাজেন্দ্রন

রাজেন্দ্রন এই প্রসঙ্গে বলেন, "কিন্তু আমি যে কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দিইনি তা সত্যি নয়। আমার কাছে কুরিয়ার স্লিপ আছে। আমি গত চার দশক ধরে দলের সঙ্গে আছি এবং আমাকে বহিষ্কার করার অধিকার দলের আছে।"
Kerala: পার্টির আমাকে বহিষ্কার করার সমস্ত অধিকার আছে - জানালেন বহিষ্কৃত CPIM নেতা এস রাজেন্দ্রন
প্রাক্তন সিপিআই(এম) বিধায়ক এস রাজেন্দ্রনফাইল ছবি সংগৃহীত

‘পার্টির আমাকে বহিষ্কার করার সমস্ত অধিকার রয়েছে৷’ সিপিআই-এম-এর ইদুক্কি জেলা কমিটি তিনবারের প্রাক্তন দেবীকুলাম বিধায়ক এস রাজেন্দ্রনকে এক বছরের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরে, তিনি বৃহস্পতিবার একথা জানিয়েছেন।

রাজেন্দ্রন এই প্রসঙ্গে বলেন, "কিন্তু আমি যে কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দিইনি তা সত্যি নয়। আমার কাছে কুরিয়ার স্লিপ আছে। আমি গত চার দশক ধরে দলের সঙ্গে আছি এবং আমাকে বহিষ্কার করার অধিকার দলের আছে।"

সিপিআই(এম) থেকে বহিষ্কৃত হবার সিদ্ধান্ত জানার পর রাজেন্দ্রন জানিয়েছেন "আমি আমার ভবিষ্যত সম্পর্কে কিছুই স্থির করিনি এবং বর্তমানে অন্য কোন দলে যোগদানের কোন পরিকল্পনা নেই। আমি আমার দলের কাছ থেকে এই বিষয়ে এখনও কিছু জানতে পারিনি। প্রথমে তা আসুক।"

প্রসঙ্গত, এই সপ্তাহের গোড়ার দিকে, ইদুক্কি জেলা কমিটি রাজেন্দ্রনকে এক বছরের জন্য দল থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ পেশ করেছে এবং চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পার্টির কেরালা রাজ্য কমিটির উপর নির্ভর করছে।

আগামী সপ্তাহে ইদুক্কি জেলা পার্টির সম্মেলন। সেখানেই আগামী তিন বছরের জন্য নতুন কমিটি নির্বাচিত করবে সিপিআই(এম) কেরালার ইদুক্কি জেলা কমিটি। সেখানেই রাজেন্দ্রন সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে।

ইদুক্কি জেলার সিপিআই-এম নেতা রাজেন্দ্রন দীর্ঘদিন ধরে সিপিআই(এম)-এর সঙ্গে যুক্ত এবং ২০০৬ সাল থেকে তিনটি মেয়াদে তিনি দেবীকুলম বিধানসভা কেন্দ্রের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

রাজ্যে গত ৬ এপ্রিলের বিধানসভা নির্বাচনে চতুর্থবারের মতো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার অনুরোধ দল প্রত্যাখ্যান করলে তিনি গভীরভাবে বিরক্ত হন। সিপিআই(এম) যদিও এই আসন ধরে রাখতে সক্ষম হয়, কিন্তু রাজেন্দ্রনের উদাসীনতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে এবং দল তদন্তের নির্দেশ দেয়। এরপরেই এক দুই সদস্যের পার্টি তদন্ত কমিটি তদন্ত শুরু করে। সম্প্রতি সেই তদন্তের রিপোর্ট অনুসারে তাঁকে গুরুতর শৃঙ্খলাভঙ্গের জন্য অভিযুক্ত করা হয়েছে এবং এক বছরের জন্য তার দলের সদস্যপদ বাতিল করার সুপারিশ হয়েছে।

রাজেন্দ্রনের প্রকাশ্য বিরোধিতা এই মাসের শুরুতে সামনে এসেছিল। সেই সময় তিনি তার জেলায় বেশ কয়েকটি দলীয় মিটিং এড়িয়ে গিয়েছিলেন।

প্রসঙ্গত, ইদুক্কি জেলা হল সিপিআই-এম-এর শক্ত ঘাঁটি যেখানে পার্টির মূল ভিত্তি হল হাজার হাজার বাগিচা কর্মী। কারণ, এই এলাকায় এলাচ ও চা বাগানের আধিপত্য রয়েছে এবং এই অঞ্চলে পার্টিতে রাজেন্দ্রন এবং রাজ্যের প্রাক্তন বিদ্যুৎ মন্ত্রী ও বর্তমান বিধায়ক এম এম মণির মধ্যে রেষারেষি আছে।

এই মাসের গোড়ার দিকে অনুষ্ঠিত পার্টি মিটিং চলাকালীন মণি রাজেন্দ্রনকে তার অনুপস্থিতির জন্য নিন্দা করেন এবং তাঁকে দল থেকে বহিষ্কারের হুমকি দেন।

সেই সময় মনি জানিয়েছিলেন, "রাজেন্দ্রনকে তিন মেয়াদে (দেবীকুলাম বিধানসভা কেন্দ্র) বিধায়ক করেছে দল এবং ইদুক্কি জেলা পঞ্চায়েতের সভাপতি হিসাবেও তিনি পূর্ণ মেয়াদ দায়িত্ব সামলেছেন। পার্টি তাঁর জন্য আর কী করতে পারে? তাঁর এই বৈঠক এবং দলের অন্যান্য সাংগঠনিক সভায় যোগ দেওয়া উচিত ছিল।"

রাজেন্দ্রন তফসিলি জাতি সম্প্রদায় থেকে আসা সত্ত্বেও, সিপিআই-এম-এর রাজ্য কমিটি রাজেন্দ্রনকে বহিষ্কারের ইদুক্কি জেলা কমিটির সিদ্ধান্তকে অনুমোদন করতে পারে বলেই রাজনৈতিক মহলের অনুমান।

প্রাক্তন সিপিআই(এম) বিধায়ক এস রাজেন্দ্রন
Kerala: বিধানসভা ভোটে পদ্ম ফোটাতে ব্যর্থ ‘মেট্রোম্যান’ শ্রীধরণ সক্রিয় রাজনীতি ছাড়লেন

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in