Karnal: পরবর্তী কর্মসূচি স্থির করতে ১১সেপ্টেম্বর কৃষক ইউনিয়নগুলির বৈঠক

হরিয়ানার কার্নালে মিনি সেক্রেটারিয়েটের সামনে কৃষক বিক্ষোভ বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনে পড়েছে। ইউনিয়নগুলি পরবর্তী কর্মসূচি স্থির করার জন্য আগামী শনিবার ফের বৈঠকে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
Karnal: পরবর্তী কর্মসূচি স্থির করতে ১১সেপ্টেম্বর কৃষক ইউনিয়নগুলির বৈঠক
কার্নালে রাকেশ টিকায়েতছবি রাকেশ টিকায়েতের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

হরিয়ানার কার্নালে মিনি সেক্রেটারিয়েটের সামনে কৃষক বিক্ষোভ বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনে পড়েছে। ইউনিয়নগুলি পরবর্তী কর্মসূচি স্থির করার জন্য আগামী শনিবার ফের বৈঠকে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের নেতা রাকেশ টিকায়েত বুধবার জানিয়েছিলেন যে, তাঁরা এখনে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চালিয়ে যাবেন। অফিসের কাজে কোন বাধা সৃষ্টি করবেন না।দিল্লী সীমান্তে অবস্থান বিক্ষোভের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সারা রাজ্যে চলবে প্রতিবাদ আন্দোলন।

তবে কৃষকরা এখানে আলোচনা চালিয়ে যেতে গররাজি, তাই স্থির হয়েছে শনিবার সব ইউনিয়ন নেতারা আলোচনা করে ভবিষ্যৎ কর্মসূচি স্থির করবেন।

ভারতীয় কিষান ইউনিয়ন (চাধুনি)-র কার্নাল জেলা সভাপতি এবং কোর কমিটির সদস্য জগদীপ সিং আউলাখ জানিয়েছেন সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা এবং হরিয়ানার অন্য ইউনিয়নগুলি এখানেই কার্নালের বিক্ষোভস্থলে বৈঠকে বসে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।ইউনিয়নগুলি হরিয়ানা সরকারকে তিনদিন সময় দিলেও একটাও দাবি মানা হয়নি। ১১ সেপ্টেম্বর এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে যাতে (মনোহর লাল) খট্টর সরকার নরম হতে বাধ্য হয়।

কার্নালে রাকেশ টিকায়েত
Karnal: কৃষকদের অবস্থান তৃতীয় দিনে - দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত চলবে বিক্ষোভ - কৃষক নেতৃত্ব

কৃষক ইউনিয়নগুলি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে তারা একমাত্র তখনই সরকারের সঙ্গে কথা বলবে যখন এসডিএম আয়ুষ সিনহার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে। গত ২৮ অগস্ট কার্নালে বাস্তারা টোলপ্লাজায় লাঠি চালানোর নির্দেশ দেওয়ার সময় তিনি বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার বক্তব্য, সিনহা সেদিন সরাসরি আন্দোলনরত কৃষকদের মাথা ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। সরকার তাকে বরখাস্ত করার পরিবর্তে পদোন্নতি ঘটায়।

আন্দোলনকারী নেতাদের দাবি সিনহাকে বরখাস্ত করতে হবে এবং তার বিরুদ্ধে মামলা করতে হবে। অন্য দাবিগুলি হল, সেদিনের ঘটনায় মৃত কৃষককে ২৫লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ এবং পরিবারের একজনকে চাকরি দিতে হবে। আহত কৃষকদের দিতে হবে দু লক্ষ টাকা করে।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in