Bihar: সীমার মধ্যে থাকুন, নইলে জোট সরকার থেকে সমর্থন প্রত্যাহার - বিজেপি নেতৃত্বকে হুঁশিয়ারি HAM-এর

হিন্দুস্তানি আওয়াম মোর্চা (HAM) র পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে কঠোর অবস্থান নিয়ে জানানো হয়েছে এনডিএ নেতৃত্ব নিজেদের সীমার মধ্যে থাকুন। অন্যথায় এইচএএম নীতিশ কুমার সরকার থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নেবে।
Bihar: সীমার মধ্যে থাকুন, নইলে জোট সরকার থেকে সমর্থন প্রত্যাহার - বিজেপি নেতৃত্বকে হুঁশিয়ারি HAM-এর
জিতন রাম মাঝি ও নীতিশ কুমারফাইল ছবি সংগৃহীত

বিহারে নীতিশ কুমার নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের ওপর থেকে সমর্থন তুলে নেবার হুঁশিয়ারি দিলো জিতন রাম মাঝির হিন্দুস্তানি আওয়াম মোর্চা (HAM)। দলের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে কঠোর অবস্থান নিয়ে জানানো হয়েছে এনডিএ নেতৃত্ব নিজেদের সীমার মধ্যে থাকুন। অন্যথায় এইচএএম নীতিশ কুমার সরকারের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নেবে।

সম্প্রতি, জিতন রাম মাঝিকে রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার এবং রামের নাম জপ করার পরামর্শ দিয়েছিলেন বিহারের পরিবেশ মন্ত্রী নীরজ কুমার বাবলু। এই প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে এইচএএম-এর প্রধান মুখপাত্র দানিশ রিজওয়ান বলেন, শুধুমাত্র ভগবান রাম তাকে যা চান তা অর্জনে সহায়তা করবেন।

দানিশ আরও বলেন, "জিতন রাম মাঞ্জিকে রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার এবং রামের নাম জপ করার পরামর্শ দেওয়ার নীরজ কুমার বাবলু কে? নীতীশ কুমার সরকারে এইচএএম-এর ৪ জন বিধায়ক রয়েছে। তাদের কারণে, তিনি মন্ত্রী হয়েছিলেন। যদি এইচএএম এই সরকারের প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করে তবে সব এনডিএ নেতা এবং মন্ত্রীরা রাস্তায় থাকবেন। তারপর আপনি ভগবান রামের নাম জপ করতে শুরু করবেন।”

তিনি আরও বলেন, "বাবলুর উচিৎ অন্য বিজেপি নেতাদের পরামর্শ দেওয়া। যেমন, কৈলাস বিজয়বর্গীয়। যারা অতীতে বেশ কয়েকবার একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। তাকে কেন তিনি রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন না?"

যদিও দানিশের মন্তব্যের উত্তরে নীরজ কুমার বাবলু আবারও বলেছেন, তিনি তার অবস্থানে অনড়। বাবলু বলেন, "জিতন রাম মাঝি এনডিএ-র একজন নেতা কিন্তু এখন তিনি অবসরের বয়সে পৌঁছেছেন। তাই তার অবসর নেওয়া উচিত এবং রামের নাম জপ করা উচিত"।

তিনি আরও বলেন, এনডিএ সরকার এইচএএম-এর ৪ বিধায়কের উপর নির্ভরশীল নয়। এটি অন্যান্য দলের সহায়তায় গঠিত হয়েছে।

জিতন রাম মাঝি ও নীতিশ কুমার
দেশের সবথেকে পিছিয়ে পড়া রাজ‍্য বিহার, কেন্দ্রের রিপোর্টের পরেই নীতিশকে খোঁচা RJD-র

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in