Kerala: টিকার শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রীর ছবির বিরোধিতায় পিটিশন - কেন্দ্রকে নোটিশ কেরালা হাইকোর্টের

আবেদনকারীর অ্যাডভোকেট অজিত জয় বলেন – যেহেতু টিকার জন্য অর্থ ব্যয় করেছেন তাঁর মক্কেল, তাই তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধে টিকার শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রীর ছবি থাকতে পারে না।
Kerala: টিকার শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রীর ছবির বিরোধিতায় পিটিশন - কেন্দ্রকে নোটিশ কেরালা হাইকোর্টের
কেরালা হাইকোর্টফাইল ছবি সংগৃহীত

করোনা টিকার শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি থাকার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একটি পিটিশনে নোটিশ জারি করেছে কেরালা হাইকোর্ট। বিচারপতি এন নাগরেশ নোটিশ জারি করেছেন এবং কেন্দ্রীয় সরকারকে এই বিষয়ে তাদের বক্তব্য দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছেন।

এক RTI (তথ্য জানার অধিকার ) কর্মী এই পিটিশন দাখিল করেছেন। পিটিশনে বলা হয়েছে - তিনি একটি বেসরকারী হাসপাতাল থেকে টাকা দিয়ে টিকা নিয়েছেন। তারপরে টিকা শংসাপত্র পেয়েছেন, যেখানে প্রধানমন্ত্রীর ছবি সহ একটি বার্তা দেওয়া হয়েছে – “ ওষুধ এবং কড়া নিয়ন্ত্রের মাধ্যমে ভারত করোনাকে পরাজিত করবে।” আবেদনকারী দাবি করেছেন যে, কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াই প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া প্রচারাভিযান হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

আবেদনকারীর অ্যাডভোকেট অজিত জয় বলেন – যেহেতু টিকার জন্য অর্থ ব্যয় করেছেন তাঁর মক্কেল, তাই তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধে টিকার শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রীর ছবি থাকতে পারে না। এতে টিকা গ্রহীতার মৌলিক অধিকার খর্ব করা হয়। তাঁর টিকার শংসাপত্রে প্রধানমন্ত্রীর ছবি থাকা সংবিধানের ১৯নং ধারা লঙ্ঘনের শামিল। পিটিশনে আরও দাবি করা হয়েছে – সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী জনসাধারণের অর্থ ব্যবহার করে জনকল্যাণমূলক কাজের প্রচারের জন্য কোনো ব্যক্তিকে কৃতিত্ব দেওয়া যায় না।

আবেদনকারী তাঁর টিকা শংসাপত্র থেকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি সরিয়ে ফেলতে আবেদন করেছেন এবং যারা প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছাড়া শংসাপত্র নিতে চান, সেই ব্যবস্থা যাতে COWIN প্ল্যাটফর্মে রাখা হয়, সেই বিষয়েও আবেদন করেছেন। আপাতত সরকারের পক্ষ থেকে কেরালা হাইকোর্টে কী বক্তব্য জানানো হয় সেটাই দেখার।

কেরালা হাইকোর্ট
Kerala: কোভিড ভ্যাকসিনেশনে নতুন রেকর্ড, বাম শাসিত রাজ্যের ৫০%-এর বেশি মানুষের দুটি ডোজই সম্পন্ন

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in