লিভারপুল কিনছেন মুকেশ আম্বানি!

মার্সিসাইড ক্লাবটিকে প্রায় ৪ বিলিয়ন পাউন্ডে বিক্রি করতে চায় মালিক প্রতিষ্ঠান। বিশ্বের অষ্টম ধনী ব্যক্তি, মুকেশ আম্বানি ইতিমধ্যেই ক্লাব কেনার বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু করে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।
লিভারপুল কেনার দৌড়ে মুকেশ আম্বানি
লিভারপুল কেনার দৌড়ে মুকেশ আম্বানিফাইল ছবি

ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের শীর্ষস্থানীয় ক্লাব লিভারপুলের শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্লাবটির মালিক প্রতিষ্ঠান ফেনওয়ে স্পোর্টস গ্রুপ(এফএ জি)। খবর অনুযায়ী, লিভারপুল ক্লাব কেনার দৌড়ে রয়েছেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর মুকেশ আম্বানি।

নিজেদের উপর থেকে ভার কমাতে এবং আরও বেশি বিনিয়োগ পেতে ক্লাবের শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে এফএসজি গ্রুপ। দ্য মিররের সংবাদ অনুযায়ী, মার্সিসাইড ক্লাবটিকে প্রায় ৪ বিলিয়ন পাউন্ডে বিক্রি করতে চায় মালিক প্রতিষ্ঠান। ফোর্বসের বিচারে বিশ্বের অষ্টম ধনী ব্যক্তি, প্রায় ৯০ বিলিয়ন পাউন্ডের মালিক মুকেশ আম্বানি ইতিমধ্যেই ক্লাব কেনার বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু করে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে এই প্রথম লিভারপুল কেনার আগ্রহ দেখালেন না মুকেশ আম্বানি। এর আগে ২০১০ সালে সাহারা গ্রুপের চেয়ারম্যান সুব্রত রায়ের সাথে, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রি লিভারপুলের ৫১ শতাংশ শেয়ারের জন্য বিড করতে চেয়েছিল বলে শোনা যায়।

২০১০ সালে লিভারপুলের মালিকানায় আসে ফেনওয়ে। এই মালিক প্রতিষ্ঠানের হাত ধরেই নিজেদের পুরোনো গরিমা খুঁজে পায় লিভারপুল। দীর্ঘ ৩০ বছরের অপেক্ষার পর ২০২০ সালে লীগ শিরোপা জেতে অলরেডসরা।উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ জয়ের পাশাপাশি এফএ কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপও জিতেছে তারা। এককথায় দুর্দান্ত সময় পার করছে লিভারপুল। তাই গত সপ্তাহে ফেনওয়ের লিভারপুল বিক্রির খবর শুনে অবাকই হয়েছিলেন অনেকে।

এফএসজি একটি বিবৃতিতে জানায়, "লিভারপুলের মালিকানার পরিবর্তন নিয়ে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এফএসজি তৃতীয় পক্ষের কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েছে, যারা লিভারপুলের মালিকানার অংশ কিনতে আগ্রহী।"

তারা আরও জানায়, "আমরা আগেও বলেছি, যদি সবকিছু ঠিকভাবে এগোয় এবং নতুন শেয়ারহোল্ডাররা যদি শর্ত মেনে লিভারপুলের প্রতি বিশেষ আগ্রহ দেখায়, তাহলে লিভারপুলের স্বার্থেই সেটা বিবেচনা করা হবে।"

লিভারপুল কেনার দৌড়ে মুকেশ আম্বানি
বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারত! মেলবোর্নে ৯০ হাজার দর্শক মাতবেন ১৩ বছরের জানকীর সুরে

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in