T-20 World Cup 22: ভারত-পাক ম্যাচে নো বল বিতর্ক! ক্ষোভে ফুঁসে উঠলেন শোয়েব সহ একাধিক পাক তারকা

নো বল বিতর্কে মন্তব্য রেখেছেন ওয়াসিম আক্রম, ওয়াকার ইউনিসের মতো কিংবদন্তীরাও। ওয়াকার ইউনিস বলেন, “বল কোমরসমান উচ্চতায় থাকলে স্কোয়ার লেগ আম্পায়ারের প্রথম কাজই হচ্ছে হাত তুলে নো বলের ইঙ্গিত দেওয়া।
নো বল বিতর্কে ক্ষোভ প্রকাশ পাক তারকাদের
নো বল বিতর্কে ক্ষোভ প্রকাশ পাক তারকাদেরগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অভিযান শুরু করেছে রোহিত বাহিনী। বিরাটের অনবদ্য ইনিংসের সৌজন্যে গত বিশ্বকাপে হারের বদলা নিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। তবে এসবের মধ্যে গতকাল থেকে শেষ ওভারের নো বল বিতর্ক তাড়া করে বেড়াচ্ছে। পাক প্রাক্তনীরা প্রশ্ন তুলেছেন নওয়াজের নো বল নিয়ে। প্রশ্ন উঠছে আম্পায়ারিং নিয়েও।

শেষ ওভারে ভারতের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। এই ওভারের চতুর্থ বলে মহম্মদ নওয়াজকে ছক্কা হাঁকান বিরাট কোহলি। এরপর বিরাট ফুলটস বল'টিকে নো বল দেওয়ার জন্য আম্পায়ারদের কাছে আবেদন করেন। আম্পায়াররা শেষ পর্যন্ত কোমরের ওপরে ওঠায় বল'টিকে 'নো' বলে ঘোষণা করে। বিতর্কের শুরু সেখান থেকেই। পাক ক্রিকেটাররা মাঠের মাঝেই আম্পায়ারকে জানায় ওই বলে ক্রিজ থেকে অনেকটা এগিয়ে এসে শট খেলেছিলেন কোহলি। তা সত্ত্বেও কেনো নো বল দেওয়া হল।

আম্পায়াররা তাঁদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন। এমনকি আম্পায়ারের কাছে পাকিস্তান রিভিউয়ের আবেদন জানালেও তা নাকচ হয়ে যায়। এরপরেই পাক প্রাক্তনীরা ক্ষোভে ফুঁসে ওঠেন। তাঁদের অনেকেই মনে করেন বলটি 'নো' ছিলনা। শোয়েব আখতার ট্যুইটে সেই ক্লিপিংয়ের স্ক্রিনশট পোস্ট করে হিন্দিতে লেখেন, "আম্পায়ার ভাইয়ো, ফুড ফর থট আজ রাত কে লিয়ে।" যার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায়, "আম্পায়ার ভাইয়েরা, আজ রাতে এই ব্যাপারটা নিয়ে একটু অন্তত ভাববেন।"

শুধু আখতারই নন। নো বল বিতর্কে মন্তব্য রেখেছেন ওয়াসিম আক্রম, ওয়াকার ইউনিসের মতো কিংবদন্তীরাও। ওয়াকার ইউনিস বলেন, “বল কোমরসমান উচ্চতায় থাকলে স্কোয়ার লেগ আম্পায়ারের প্রথম কাজই হচ্ছে হাত তুলে নো বলের ইঙ্গিত দেওয়া। উনি (মারাইস ইরাসমাস) অভিজ্ঞ আম্পায়ার। সরাসরি নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে পারতেন। তা না করে তিনি রিপ্লে দেখে এবং কোহলি বলার পর নো বল দিলেন। নো বল ছিল কি না সেই বিতর্কে যেতে চাই না। কিন্তু আম্পায়ারের উচিত ছিল তখনই সিদ্ধান্ত নেওয়া।"

ওয়াসিম আক্রম বলেন, "বলটা ক্রমশ নীচু হয়ে যাচ্ছিল। খালি চোখে দেখে কখনওই ওটা নো বল মনে হয়নি। ব্যাটে লাগার আগেই বলটা অনেক নীচু হয়ে গিয়েছিল। যে কোনও ব্যাটারই নো বলের দাবি জানাবে। কোহলির কোনও দোষ ছিল না। কিন্তু এত বড় ম্যাচে যেখানে প্রযুক্তি রয়েছে, তা হলে সেটা ব্যবহার করা হোক। কেন ম্যাচটাকে উত্তপ্ত হতে দেওয়া হল?"

নো বল বিতর্কে ক্ষোভ প্রকাশ পাক তারকাদের
IND vs PAK: দেশকে জিতিয়ে আবেগ ধরে রাখতে পারলেন না বিরাট, 'নিজের সেরা ইনিংস' খেলে কী বললেন কোহলি?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in