IND vs PAK: দেশকে জিতিয়ে আবেগ ধরে রাখতে পারলেন না বিরাট, 'নিজের সেরা ইনিংস' খেলে কী বললেন কোহলি?

ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিতে এসেও আবেগে ভাসলেন কোহলি। তিনি বলেন,"আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। কী বলব বুঝতে পারছি না।" স্টেডিয়াম জুড়ে তখন শুধু বিরাট ধ্বনি।
বিরাট কোহলি
বিরাট কোহলিছবি সৌজন্যে বিসিসিআই টুইটার হ্যান্ডেল

সেঞ্চুরি বিহীন কাটিয়েছেন তিন বছর। হারিয়েছেন অধিনায়কত্ব। ভুগেছেন অবসাদে। প্রাক্তনীদের কাছে সহানুভূতি পাওয়ার চেয়ে সমালোচনার শিকার হয়েছেন বেশি। পারফর্ম্যান্স না করলে যতো বড়ই তারকা হোক না কেনো জায়গা ছেড়ে দেওয়ার চোখ রাঙানিও সহ্য করেছেন। মেলবোর্নে সেসবেরই যেনো উত্তর দিলেন বিরাট কোহলি।

কোহলিকে গোটা মাঠ ছুটে বেড়িয়ে উদযাপন করতে দেখেছে ক্রিকেট বিশ্ব। বাইশ গজে নাচের ছন্দেও দেখা মিলেছে তাঁর। তবে কোহলির চোখে জল। এ যেনো বিশ্বাসই করতে পারছে না মেলবোর্নের ৯০ হাজার দর্শক। ধারাভাষ্যকার হর্শ ভোগলে বললেন, "এত বছর ধরে বিরাটকে দেখেছি। তার চোখে কখনো জল দেখিনি। আজ দেখলাম। এটি অবিস্মরণীয়।"

বিরাটকে এই রুপে অনেকদিন দেখেনি ক্রিকেট বিশ্ব। যখন সব দরজা বন্ধ হয়ে যায়। টিম টিম ক্ষীণ আলো জ্বলে আশার। সেখান থেকেই দলকে বের করে আনেন রাজার মতো। সেই কোহলিকে দেখা গেল বহু অপেক্ষার পর। ঐতিহাসিক ইনিংস খেললেন নিজের স্টাইলেই। গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তাঁর অধিনায়কত্বেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে লজ্জার হার মাথা পেতে নিতে হয়েছিল টিম ইন্ডিয়াকে। সেই হারের বদলা নিলেন কোহলি। সমর্থকদের জানিয়ে দিলেন, তিনি ফুরিয়ে যাননি। তিনি ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন।

আজকের ৫৩ বলে ৮২ রানের ইনিংসটা অনেকের চোখে এখন কোহলির সেরা। কেউ কেউ বলবেন, টি-টোয়েন্টির ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা ইনিংস। বিরাট নিজেই জানালেন এটি তাঁর সেরা ইনিংস। কোহলি বলেন, "এত দিন আমার কাছে সেরা ছিল মোহালিতে ৫২ (যদিও সেটা ৫১ বলে করেছিলেন তিনি) বলে ৮২ রানের ইনিংসটা (২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে)। তবে রবিবার ৫৩ বলে যে ৮২ রান করলাম, সেটাকেই এখন এগিয়ে থাকবে। এই ম্যাচের পরিস্থিতিই আলাদা ছিল। তবে দু'টোই আমার কাছে বিশেষ ইনিংস হয়ে থাকবে।"

ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিতে এসেও আবেগে ভাসলেন কোহলি। তিনি বলেন,"আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। কী বলব বুঝতে পারছি না।" স্টেডিয়াম জুড়ে তখন শুধু বিরাট ধ্বনি। কোহলি বলে চলেছেন, "আমার সত্যিই কিছু বলার নেই। আমি জানি না কী হচ্ছে। হার্দিক আমাকে বার বার বলছিল যে, বিশ্বাস রাখো আমরা পারব। আমি কিছু বলতে পারছি না। এটা অস্বাভাবিক পরিস্থিতি। আমাদের কাছে হিসেব পরিষ্কার ছিল। হ্যারিস রউফকে যদি আমি আক্রমণ করতাম, তা হলে পাকিস্তান চাপে পড়ে যাবে জানতাম। তাতেই শেষ ওভারে ১৬ রানের লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায়। নিজেকে শান্ত রাখার চেষ্টা করছিলাম। অনেক মাস রান পাচ্ছিলাম না। সমর্থকরা আমার পাশে ছিল। ধন্যবাদ।"

অনবদ্য ইনিংস খেলে কোহলি দলকে জেতানোর সাথে সাথেই দৌড়ে এসে বিরাটকে কোলে তুলে নিলেন রোহিত। বিরাটকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দিলেন ভারত অধিনায়ক। জানালেন কুর্নিশ। রোহিত বললেন, "বিশ্বকাপের মতো প্রতিযোগিতায় জিতে শুরু করা, তা-ও আবার পাকিস্তানের মতো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে, এর থেকে ভাল অনুভূতি আর হয় না। আমাদের আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে যাবে এই জয়ের কারণে। যে পরিস্থিতিতে ছিলাম এবং যে ভাবে ম্যাচটা জিতলাম, তাতে এই ম্যাচের মাধুর্য আরও বেড়ে গিয়েছে। মন থেকে বলছি, বিরাটকে টুপি খুলে কুর্নিশ। আমার দেখা ভারতের হয়ে খেলা ওর অন্যতম সেরা ইনিংস।"

বিরাট কোহলি
T-20 World Cup 22: বিশ্বরেকর্ড! পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম বলেই উইকেট নিয়ে নজির আর্শদীপ সিং-র

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in