শনিবার খেলবেন শেষ ম্যাচ, দীর্ঘ ১৪ বছরের সম্পর্ক শেষ করে বার্সাকে বিদায় স্প্যানিশ ডিফেন্ডারের

বার্সার সাথে দীর্ঘ ১৪ বছরের সম্পর্ক জেরার্ড পিকের। এই ক্লাবের হয়ে খেলেছেন ৬১৫ ম্যাচ। গোল করেছেন ৫২ টি। তিনটি চ্যাম্পিয়নস লীগ শিরোপা জয়, বার্সার হয়ে আটটি লা লিগা এবং সাতটি কোপা দেলরে জিতেছেন তিনি।
বার্সাকে বিদায় জানাচ্ছেন জেরার্ড পিকে
বার্সাকে বিদায় জানাচ্ছেন জেরার্ড পিকেফাইল ছবি

পেশাদারী ফুটবলকে বিদায় জানাচ্ছেন জেরার্ড পিকে। চার বছর আগে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইতি টেনেছিলেন এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার। এবার বার্সার হয়েও বুট জোড়া তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন। শনিবার আলমেইরার বিরুদ্ধে কাতালান ক্লাবের জার্সিতে শেষ ম্যাচে মাঠে নামতে চলেছেন পিকে।

বার্সার সাথে দীর্ঘ ১৪ বছরের সম্পর্ক স্প্যানিশ ডিফেন্ডারের। এই ক্লাবের হয়ে খেলেছেন ৬১৫ ম্যাচ। গোল করেছেন ৫২ টি। তিনটি চ্যাম্পিয়নস লীগ শিরোপা জয়ের পাশাপাশি বার্সার হয়ে আটটি লা লিগা এবং সাতটি কোপা দেলরে জিতেছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগি ভিডিয়ো পোস্ট করে সেই বার্সাকে বিদায় জানানোর কথা ঘোষণা করে দিলেন পিকে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পিকে জানান, "আপনাদের অনেকের মতোই আমিও সব সময়ই বার্সেলোনা–ভক্ত ছিলাম, আমার জন্মও একটা ফুটবল পরিবারে। খুব অল্প বয়স থেকেই আমি ফুটবলার নয়, হতে চাইতাম বার্সেলোনা–ফুটবলার।"

স্প্যানিশ তারকা বলেন, "২৫ বছর হয়ে গেল আমার বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার। আমি চলে গিয়েছিলাম, আবার ফিরে এসেছি। ফুটবল আমাকে সবকিছু দিয়েছে। বার্সেলোনা আমাকে সবকিছু দিয়েছে। আপনারা, সমর্থকেরা, আমাকে সবকিছু দিয়েছেন। আপনারা আমাকে জানেন। আজ অথবা কাল আমি ফিরে আসব। আপনাদের সঙ্গে ক্যাম্প ন্যুতে দেখা হবে। বার্সা দীর্ঘজীবী হোক। সব সময়।"

পিকের ফুটবলে হাতেখড়ি বার্সেলোনার যুব অ্যাকাডেমি লা মাসিয়াতে। সেখান থেকে সিনিয়র কেরিয়ার শুরু করেন প্রিমিয়ার লীগে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের হাত ধরে। ২০০৪-০৮ (২০০৬-০৭, রিয়াল জারাগোজায় লোনে) পর্যন্ত ওল্ড ট্যাফোর্ডে কাটিয়ে চলে আসেন বার্সায়। এরপর থেকে দীর্ঘ ১৪ বছর বার্সার হয়েই খেলছেন।কখনও আর ক্লাব বদলের কথা ভাবেনওনি তিনি। এবার ৩৫ বছর বয়সে এসে ফুটবলকে বিদায় জানাচ্ছেন বার্সার বহু যুদ্ধের এই লড়াকু সৈনিক।

বার্সাকে বিদায় জানাচ্ছেন জেরার্ড পিকে
T-20 World Cup 22: 'ভুয়ো ফিল্ডিং' নিয়ে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া, বিরাটকে 'প্রতারক'ও বললো বাংলাদেশ

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in