ভারতের ক্রীড়াক্ষেত্রে ফের ডোপিং-এর কলঙ্ক, দু'বছর নির্বাসিত এশিয়ান গেমসে সোনা জয়ী এমআর পুভাম্মা

দু'বছরের জন্য নির্বাসিত এশিয়ান গেমসে রিলেতে সোনা জয়ী স্প্রিন্টার এমআর পুভাম্মা। জাতীয় ডোপিং বিরোধী আপিল প্যানেল সাসপেন্ড করেছে তাঁকে। ২০২৩ সালের ১৬ জুন ফের কোনও প্রতিযোগীতায় অংশ নিতে পারবেন তিনি।
এমআর পুভাম্মা
এমআর পুভাম্মাফাইল ছবি সংগৃহীত

ভারতের ক্রীড়াক্ষেত্রে ফের ডোপিং-এর কলঙ্ক। নিষিদ্ধ পদার্থ সেবন করায় দু'বছরের জন্য নির্বাসিত হলেন এশিয়ান গেমসে রিলেতে সোনা জয়ী স্প্রিন্টার এমআর পুভাম্মা। জাতীয় ডোপিং বিরোধী আপিল প্যানেল সাসপেন্ড করেছে তাঁকে। ২০২৩ সালের ১৬ জুন আবার কোনো প্রতিযোগীতায় অংশ নিতে পারবেন পুভাম্মা।

২০২১ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারী ইন্ডিয়ান গ্রাঁ - পি তে পুভাম্মার নমুনা নেওয়া হয়। তাতে পাওয়া যায় মিথাইলহেক্সামাইনিন। ২০০৯ সালে ওয়ার্ল্ড এন্টি ডোপিং এজেন্সি এই রাসায়নিকটিকে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করে। পুভাম্মা অবশ্য ওষুধ ব্যবহারের কথা অস্বীকার করেছিলেন। কিন্তু তাঁর 'এ' এবং 'বি' দুই নমুনাতেই নিষিদ্ধ পদার্থ পাওয়া যাওয়ার পর তিনি বেডটাইম ল্যাট নামের একটি আয়ুর্বেদিক পানীয় গ্রহণ করার কথা স্বীকার করেছিলেন।

২০২২ সালের জুনে অ্যান্টি ডোপিং ডিসিপ্লিনারি প্যানেল(ADDP) তাঁকে তিন মাস নির্বাসিত করে। এই শাস্তি যথেষ্ট নয় বলে দাবি করে ন্যাশনাল অ্যান্টি-ডোপিং এজেন্সি(NADA)। এডিডিপি নাডার বক্তব্য মেনে নিয়ে নির্বাসন বাড়িয়ে তা দু'বছর করলো।

২০১২ এশিয়ান অ্যাথলেটিক্স মিটে ৪০০ মিটারে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন পুভাম্মা। ২০১৫ সালে অর্জুন পুরস্কার দেওয়া হয় তাঁকে। ২০১৪ সালের এশিয়ান গেমসে মহিলাদের ৪০০ মিটার রিলেতে সোনা জেতেন ভারতীয় দলের সদস্য। ২০১৮ সালের এশিয়ান গেমসে মহিলাদের এবং মিক্সড ৪০০ মিটার রিলের সোনাজয়ী দলেও ছিলেন তিনি। গত বছর জেতা তাঁর তিনটি পদক ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এমআর পুভাম্মার নির্বাসনের মেয়াদ শুরু হচ্ছে ২০১৬ সালের ২১ জুন থেকে। নির্বাসন শেষ হবে ২০২৩ সালের ১৬ জুন। যার ফলে আগামী বছর ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশীপ এবং এশিয়ান গেমসে অংশ নিতে পারবেন না তিনি।

এমআর পুভাম্মা
ফ্যান্টাসি লিগের প্রমোশন করেন সৌরভ - BCCI সভাপতিকে নিশানা করে কটাক্ষ গৌতম গম্ভীরের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in