শেষ ৫ বছরে দুর্গাপুজো কমিটিগুলোকে রাজ্যের অনুদান প্রায় ৭৫০ কোটি টাকা

এই বছর ৪২ হাজার পুজো কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। খরচ হবে ২৫২ কোটিরও বেশি টাকা।
৪২ হাজার পুজো কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর
৪২ হাজার পুজো কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীরফাইল ছবি

শেষ পাঁচ বছরে দুর্গাপুজো কমিটিগুলোকে অনুদান দেওয়ার জন্য প্রায় সাড়ে সাতশো কোটি টাকা খরচ করেছে রাজ্য সরকার। চলতি বছরেই খরচ হবে ২৫২ কোটিরও বেশি টাকা। এই বছর ৪২ হাজার পুজো কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর ক্লাবগুলিকে অনুদানের ঘোষণার বিরোধিতা করে ইতিমধ্যেই তিনটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে। মামলাকারীদের অভিযোগ, যেখানে সরকারী কর্মীদের DA দিতে পারছে না রাজ্য, সেখানে পুজো কমিটিগুলোকে কীভাবে অনুদান হিসেবে এই বিপুল অর্থ কিভাবে দিচ্ছে?

২০১৮ সাল থেকে দুর্গাপুজো কমিটিগুলোকে অনুদান দিচ্ছে রাজ্য সরকার। বাজেট ঘোষণার সময়ই এই অনুদানের জন্য বরাদ্দ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু শেষ চার বছরের প্রতিবারই বরাদ্দের থেকে বেশি খরচ করেছে রাজ্য। এবছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এবছর অনুদানের জন্য বাজেট ছিল ২০৭ কোটি টাকা। কিন্তু গত সোমবার মুখ্যমন্ত্রী যা ঘোষণা করেছেন তাতে ২৫২ কোটির বেশি টাকা খরচ হবে। অর্থাৎ বাজেট বরাদ্দের তুলনায় প্রায় ৫০ কোটি টাকা বেশি খরচ করছে রাজ্য।

রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দপ্তর সূত্রে খবর, ২০১৮ থেকে ২০২১ সাল - চার বছরে পুজো কমিটিগুলোকে অনুদান হিসেবে মোট ৪৮৪ কোটি ২৩ লক্ষ ২৬ হাজার টাকা দিয়েছে সরকার। ২০১৮ সালে মোট ২৮ হাজার ক্লাবকে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছিল। ২০১৯ সালে দেওয়া হয় ২৫ হাজার টাকা করে। ২০২০ সালে অনুদানের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়ায় ৫০ হাজার টাকা। ২০২১ সালেও দেওয়া হয় ৫০ হাজার টাকা করে। এই বছর দেওয়া হবে ৬০ হাজার টাকা করে।

অনুদানের পরিমাণ বাড়ার সাথে সাথে প্রতি বছর অনুদানপ্রাপ্ত পুজো কমিটির সংখ্যাও বেড়েছে। প্রথম বছর যেখানে ২৮ হাজার ক্লাবকে অনুদান দেওয়া হয়েছিল, এই বছর সে সংখ্যাটা বাড়তে বাড়তে ৪২ হাজারে পৌঁছেছে। ২০১৮ সালে অনুদানের জন্য রাজ্য সরকারের খরচ হয়েছিল ২৮ কোটি টাকা। ২০১৯ সালে ৬১ কোটি ১৩ লক্ষ ১১ হাজার টাকা, ২০২০ সালে ১৯৬ কোটি ৫৭ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা, ২০২১ সালে ২০৪ কোটি টাকা এবং ২০২২ সালে দেওয়া হচ্ছে ২৫২ কোটি টাকা। অর্থাৎ শেষ পাঁচ বছর মিলিয়ে রাজ্য সরকার অনুদানের জন্য মোট ৭৪২ কোটিরও বেশি টাকা খরচ করেছে।

এছাড়া বিদ্যুৎ বিলে ছাড়ও বাড়িয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। গত বছর পর্যন্ত ক্লাবগুলিকে বিদ্যুৎ বিলে ৫০ শতাংশ ছাড় দিয়েছিল সরকার, এবার তা বাড়িয়ে ৬০ শতাংশ করা হয়েছে।

সাধারণ মানুষের টাকা আরও নানাভাবে দুর্গাপুজো ক্লাবগুলোর পিছনে খরচ করে সরকার। যেমন দুর্গাপূজার পর জাঁকজমক করে যে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান করা হয়, তার টাকাও রাজ্য কোষাগার থেকে দেওয়া হয়। গত বছর এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে ৫ লক্ষ ৮১ হাজার টাকা খরচ করেছিল সরকার। 'শারদ সম্মান' পুরস্কারের জন্য সরকারের বরাদ্দ ছিল ৭ লক্ষ ১৬ হাজার ২৫০ টাকা। গাড়িতে ঘুরে সেরা পুজো বেছে নেওয়ার জন্য বরাদ্দ ছিল ৬০ লক্ষ ২২ হাজার ৫৭৫ টাকা।

৪২ হাজার পুজো কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর
সরকারি কর্মীদের DA-তে না! পুজো কমিটিগুলিকে অনুদান কীভাবে? প্রশ্ন তুলে ৩য় জনস্বার্থ মামলা হাইকোর্টে

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in