ছবি প্রতীকী
ছবি প্রতীকীগ্রাফিক্স - আকাশ

টালমাটাল টেক - বিশজুড়ে ৬ মাসে ছাঁটাই ২.১২ লক্ষ কর্মী, ভারতেই ২৭ হাজার

বড় টেক কোম্পানি থেকে শুরু করে ছোট স্টার্টআপ কোম্পানি মিলিয়ে মোট ৮১৯টি কোম্পানি চলতি বছরের শুরু থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত মোট ২ লক্ষ ১২ হাজার ২২১ জন কর্মচারীকে ছাঁটাই করেছে।

চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে বিশ্ব জুড়ে প্রযুক্তি কোম্পানিগুলি থেকে প্রায় ২.১২ লক্ষ কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে। গোটা বিশ্বের কর্মী ছাঁটাইয়ের হিসেব রাখা এক ওয়েবসাইট ‘লেঅফস.এফওয়াইআই’-এর তথ্য অনুযায়ী, বড় টেক কোম্পানি থেকে শুরু করে ছোট স্টার্টআপ কোম্পানি মিলিয়ে মোট ৮১৯টি কোম্পানি চলতি বছরের শুরু থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত মোট ২ লক্ষ ১২ হাজার ২২১ জন কর্মচারীকে ছাঁটাই করেছে।

২০২২ সালের গোটা বছরে ১০৪৬টি কোম্পানি মোট ১.৬১ লক্ষ কর্মীকে বরখাস্ত করেছিল। চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসেই সেই সংখ্যাটা ছাড়িয়ে গিয়েছে। তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত সারা বিশ্বে সর্বমোট ৩.৮ লক্ষ প্রযুক্তি কর্মী চাকরি হারিয়েছেন।

২০২১ সালে যখন সারা বিশ্বের উপর করোনা অতিমারীর রক্তচক্ষু পড়েছিল, তারপর থেকেই গোটা বিশ্বের টেক কোম্পানিগুলি লাগাতার কর্মী ছাঁটাইয়ের পথ ধরেছে। ফেসবুক, গুগল, আমাজন থেকে শুরু করে সমস্ত হেভিওয়েট টেক জায়ান্টই এই খাতায় নাম লিখিয়েছে। কর্মচারী ছাঁটাইয়ের অজুহাত হিসেবে কোম্পানিগুলি অতিরিক্ত নিয়োগ, বিশ্বব্যাপী টালমাটাল অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও কোভিড-১৯ এর শক্তিশালী আফটার এফেক্টের মতো কারণ দেখিয়েছে।

ভারতের টেক দুনিয়াতেও ছবিটা প্রায় একইরকম। চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে ভারতে প্রায় ১১ হাজার টেক কর্মী তাদের কর্মস্থান থেকে বরখাস্ত হয়েছেন। সংখ্যাটা গত বছরের প্রথম ৬ মাসের হিসাবের তুলনায় প্রায় ৪০ শতাংশ বেশি। ২০২৩ সালের প্রথম ছয় মাসে বিশ্বে যে পরিমাণ কর্মী চাকরি হারিয়েছেন ভারত তার ৫ শতাংশের ভাগীদার। নয়াদিল্লির এক কর্মচারী ও কর্মসংস্থান সংক্রান্ত সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত বছরের শীতকালের পর থেকে এখনও পর্যন্ত ভারতের ১০২টি টেক স্টার্টআপ কোম্পানি প্রায় ২৭ হাজারেরও বেশি কর্মচারী ছাঁটাই করেছে।

তথ্য বলছে, ভারতের ৫ থেকে ৭টি হেভিওয়েট ইউনিকর্ন টেক স্টার্টআপ কোম্পানি-সহ মোট ২২টি শিক্ষা-প্রযুক্তিমূলক স্টার্টআপ কোম্পানি এখনও পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার কর্মচারীকে বরখাস্তের নোটিশ ধরিয়েছে। ২০২৩ সালের জানুয়ারি থেকে জুন মাস পর্যন্ত ৬ মাসে ভারতের ইউনিকর্ন স্টার্টআপ কোম্পানিগুলির ফান্ডিং গত বছরের প্রথম ৬ মাসের তুলনায় প্রায় ৭০ শতাংশ মার খেয়েছে। যার ফলে এই মুহূর্তে ভারতের স্টার্টআপ টেক কোম্পানিগুলি ব্যাপক আর্থিক মন্দার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। সুতরাং, চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে ভারতের স্টার্টআপ দুনিয়ায় কোনও ইউনিকর্ন কোম্পানি নেই। প্রসঙ্গত, শেয়ার বাজারের তালিকাভুক্ত না হয়েই কোনও স্টার্টআপ কোম্পানির বাজারদর ১ বিলিয়ন বা তার বেশি হলে, সেই কোম্পানি ইউনিকর্ন কোম্পানি হিসেবে পরিচিত হয়। বস্তুত, ইউনিকর্ন কোম্পানির শিরোপা আদায় প্রায় সমস্ত স্টার্টআপ কোম্পানির কাছেই স্বপ্নের মতো।

ছবি প্রতীকী
খরচ বাঁচাতে শেষ ১৯ লেখককেও বরখাস্ত করল ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ম্যাগাজিন
ছবি প্রতীকী
Lay Off: মেটা-য় তৃতীয় দফার ছাঁটাইয়ে কর্মহীন ৬ হাজার, কোপ ভারতীয় কর্মীদের ওপরেও

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in