NASA: ১৯৭২-র পর ফের চাঁদে মানুষ পাঠাচ্ছে NASA! সফল উৎক্ষেপণ 'অর্টেমিস ১'-র

ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারের ৩৯বি লঞ্চ কমপ্লেক্স থেকে উৎক্ষেপণ হয় (ভারতীয় সময় রাত ১২টা ১৭ মিনিট)। লঞ্চ করার প্রায় আট মিনিট পর রকেটের মূল অংশটি আলদা হয়ে যায়।
উৎক্ষেপণের মুহূর্ত
উৎক্ষেপণের মুহূর্তছবি - NASA's Exploration Ground Systems-র ট্যুইটার হ্যান্ডেল

নয়া নজির গড়তে চলেছে নাসা। ফের একবার চাঁদের মাটিতে পা রাখবেন মহাকাশচারীরা। যার প্রথম ধাপ সম্পন্ন হয়েছে বুধবার। ১৯৭২ সালের পর ফের চাঁদে মানুষ পাঠাবে নাসা।

বার বার ব্যর্থ হওয়ার পর অবশেষে সাফল্যের উড়ান নাসার ‘অর্টেমিস ১’-র। যাত্রী ছাড়াই মহাশূন্যে পাড়ি দিল রকেটটি। এই রকেটের কাজ হলো চাঁদের কোন কোন জায়গায় ল্যান্ডিং করা যেতে পারে সেগুলি চিহ্নিত করা। প্রতি মুহূর্তের খবর ‘অর্টেমিস ১’-র মাধ্যমে নাসা জানতে পারবে। ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারের ৩৯বি লঞ্চ কমপ্লেক্স থেকে উৎক্ষেপণ হয় (ভারতীয় সময় রাত ১২টা ১৭ মিনিট)। লঞ্চ করার প্রায় আট মিনিট পর রকেটের মূল অংশটি আলদা হয়ে যায়।

এর আগে আগস্ট মাসে দিন ঠিক করা হলেও রকেটের হাইড্রোজেন সরবরাহ লাইনে ছিদ্র দেখা দেয়। বহু চেষ্টা করেও কোন লাভ হয়নি। ফলে পিছিয়ে যায় লঞ্চিং-র দিন। সেপ্টেম্বর মাসে পুনরায় উৎক্ষেপণের চেষ্টা করলেও হাইড্রোজেন ট্যাঙ্কেই ছিদ্র দেখা দেয়। ফলে ব্যাহত হয় কর্মসূচি। পিছিয়ে ১৪ নভেম্বর ধার্য করা হয়েছিল। কিন্তু ‘নিকোল’ ঝড়ের জন্য উৎক্ষেপণের দিন ফের পিছিয়ে যায়।

দ্বিতীয় ধাপে যাত্রী সহ পাড়ি দেবে অর্টেমিস। অর্টেমিস ১-র ডিরেক্টর চার্লি ব্ল্যাকওয়েল-থম্পসন বলেন, আমি সত্যি বাকরুদ্ধ। আমি আমার সকল সতীর্থকে ধন্যবাদ জানাই। এই কাজ সকলে মিলে আমরা করেছি। সাফল্যের পেছনে সতীর্থের ভূমিকা কোনোদিন অস্বীকার করা যাবে না। এই দিনটি তোমাদেরকে (সতীর্থদের) উৎসর্গ করলাম।

উৎক্ষেপণের মুহূর্ত
টুইটার, ফেসবুকের পর এবার গণছাঁটাই আমাজনে, চলতি সপ্তাহেই কোম্পানির ইতিহাসে সবথেকে বড় ছাঁটাই

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in