এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চল ২০২৫ সালের মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় (AI) ৩২ বিলিয়ন ডলার খরচ করবে

আগামী পাঁচ বছরে, ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্র কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) সিস্টেমের জন্য সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ করবে। রাজ্য/স্থানীয় সরকার দ্বিতীয়-সর্বোচ্চ ব্যয়কারী।
এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চল ২০২৫ সালের মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় (AI) ৩২ বিলিয়ন ডলার খরচ করবে
ছবি - প্রতীকীসংগৃহীত

এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের দেশগুলি ২০২২ সালে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) সিস্টেমের জন্য ১৭.৬ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করবে এবং এটি ২০২৫ সালে ৩২ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছবে বলে আশা করা হচ্ছে। একটি নতুন IDC রিপোর্টে এমনই তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। আগামী পাঁচ বছরে, ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্র কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) সিস্টেমের জন্য সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ করবে। রাজ্য/স্থানীয় সরকার দ্বিতীয়-সর্বোচ্চ ব্যয়কারী।

কগনিটিভ কম্পিউটিং-আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ফর IDC এশিয়া-প্যাসিফিকের সহযোগী গবেষণা পরিচালক জেসি ড্যানকিং কাই–র কথায় – “দীর্ঘমেয়াদে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) সিস্টেমের একটি সুস্পষ্ট নির্দেশিকা সংস্থাগুলির আস্থা আরও বাড়িয়ে তুলবে। গ্রাহকদের পছন্দ-অপছন্দের বিষয়ে অবগত হতে, কর্মীদের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে এবং প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা পেতে সংস্থাগুলি আগামীদিনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI)-তে বিনিয়োগ করবে।”

রিপোর্টে বলা হয়েছে - বর্ধিত গ্রাহক পরিষেবা, পণ্য কেনা বেচার সুপারিশ বৃদ্ধি এবং ব্যবসাকে আরও স্মার্ট করতে এবং অটোমেশনের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি করতে বিভিন্ন সংস্থা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সিস্টেমের (AI) দারস্থ হচ্ছে। আরও ভাল গ্রাহক পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে তৎক্ষণাৎ সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় এবং সময় বাঁচায় এই সিস্টেম।

রাজ্য এবং স্থানীয় সরকারগুলি মোট AI ব্যয়ের ৬৪.৩ শতাংশের বেশি জননিরাপত্তা এবং জরুরীকালীন ব্যবস্থাতে ব্যয় করছে। একইভাবে, ব্যাঙ্কিং সেক্টর প্রতারণামূলক লেনদেন এবং অসঙ্গতি সনাক্ত করতে করতে বেশিরভাগ অর্থ ব্যয় করছে। অ্যাকসেনচারের একটি সমীক্ষা অনুসারে, বিশ্বের ৮৮% এক্সিকিউটিভ বিশ্বাস করেন যে তাদের ব্যবসায় টিকে থাকার জন্য তাদের AI প্রয়োজন। কিন্তু সেক্ষেত্রে AI অপব্যবহার রুখতে সুনির্দিষ্ট সরকারি নজরদারি আইনের প্রয়োজন।

ছবি - প্রতীকী
ISS: নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না হলে সমস্ত সম্পর্ক বন্ধ করতে শীঘ্রই তারিখ নির্ধারণ করবে রাশিয়া!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.