কোচবিহারে আবারও TMC-র গোষ্ঠী সংঘর্ষ, গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি অঞ্চল সভাপতি

ওই নেতাকে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয়, গুলিও চলে বলে অভিযোগ। আক্রান্তের নাম উত্তম বর্মন। তিনি ওই তৃণমূল কংগ্রেসের বলরামপুর ২ অঞ্চলের সভাপতি।
কোচবিহারে আবারও TMC-র গোষ্ঠী সংঘর্ষ, গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি অঞ্চল সভাপতি
ছবি - প্রতীকী

ফের তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল কোচবিহার। তৃণমূলে এক পক্ষ আরেক পক্ষের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। জখম হন তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার জেলার নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের। এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে তৃণমূলের গোষ্ঠী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের অনুগামীদের বিরুদ্ধে।

ওই নেতাকে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয়, গুলিও চলে বলে অভিযোগ। আক্রান্তের নাম উত্তম বর্মন। তিনি ওই তৃণমূল কংগ্রেসের বলরামপুর ২ অঞ্চলের সভাপতি। বর্তমানে তিনি একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই তৃণমূল নেতাকে প্রথমে তুফানগঞ্জের মহকুমা হাসপাতালে, পরে তাঁকে কোচবিহারের বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

হাসপাতালের বেডে অঞ্চল সভাপতির অভিযোগ করে জানান, রবীন্দ্রনাথ ঘোষের অনুগামীরা শনিবার রাত ১১টা নাগাদ রাস্তায় পাইপ ফেলে তাঁর পথ আটকে দাঁড়ায়। তারপর গাড়িতে মারধর শুরু করে। তিনি পালানোর চেষ্টা করলে মাথায়, কাঁধে, পায়ে আঘাত করে। কোনওমতে লুকিয়ে প্রাণে বাঁচেন। পালিয়ে পাশের একটি বাড়িতে আশ্রয় নেন তিনি।

খবর পেয়ে রবিবার সকালে ওই বেসরকারি হাসপাতালে উত্তমবাবুকে দেখতে যান উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার চেয়ারম্যান তথা কোচবিহারের তৃণমূলের প্রাক্তন জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়। তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন। ঘটনাটি জেলা নেতৃত্বকে জানাবেন বলে আশ্বাসও দেন।

ছবি - প্রতীকী
Usthi: আবারও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে, যুব নেতাকে খুনের চেষ্টার অভিযোগ TMC MLA-র বিরুদ্ধেই

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.