আরও বিপাকে অনুব্রত! ছেলের লটারির টিকিট কেড়ে নেওয়া হয়েছে - বিষ্ফোরক অভিযোগ বোলপুরের বাসিন্দার

লটারির টিকিট কেটে ১ কোটি টাকা জিতেছিলেন শেখ নুর আলি। এরপরই তৃণমূলের কিছু নেতা এসে টিকিট দেওয়ার জন্য তাঁদের ক্রমাগত হুমকি দেন। আতঙ্কে গ্রামছাড়া হতে হয়েছে তাঁদের।
শেখ নুর আলি (ডানে)
শেখ নুর আলি (ডানে)ফাইল চিত্র -

অনুব্রতর লটারি কাণ্ডে নয়া মোড়। বীরভূমের দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ আনলেন বোলপুরের বড় শিমুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা কটাই শেখ। তাঁর অভিযোগ, লটারির টিকিট কেটে ১ কোটি টাকা জিতেছিলেন তাঁর ছেলে শেখ নুর আলি। কিন্তু এরপরই তৃণমূলের কিছু নেতা এসে টিকিট দেওয়ার জন্য তাঁদের ক্রমাগত হুমকি দেন। আতঙ্কে গ্রামছাড়া হতে হয়েছে তাঁদের।

কটাইয়ের অভিযোগের পর বৃহস্পতিবার তাঁর ছেলে নুরের বাড়িতে হানা দেয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। দিনভর তল্লাশি চালানোর পর শান্তিনিকেতনে সিবিআই-র অস্থায়ী ক্যাম্পে তলব করা হয় নুরকে। লটারিকাণ্ডে তাঁর যাবতীয় সম্পত্তি এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের আতসকাঁচের তলায়।

কটাইয়ের অভিযোগ, কালাম শেখ নামের এক ব্যক্তি গ্রামে ঘুরে ঘুরে লটারির টিকিট বিক্রি করতেন। তাঁর কাছ থেকে টিকিট কিনেছিলেন নুর। তাতে ১ কোটি টাকা জেতেন তারা। কিন্তু এরপর থেকেই টিকিট দিয়ে দেওয়ার জন্য ক্রমাগত তাদের উপর চাপ সৃষ্টি করা হত।

শুধু তাই নয়, ক্রমাগত ভয় দেখানো হত কটাই এবং তার দুই ছেলেকে। প্রাণের ভয়ে ১ সপ্তাহের জন্য গ্রাম ছাড়তে বাধ্য হয় তারা। তবে ফিরে এসেও হল না শেষরক্ষা। জোর করে তাদের থেকে কেড়ে নেওয়া হয় লটারির টিকিট। নাহলে গ্রামে টিকতে দেবে না বলে হুমকি দিয়েছিল তৃণমূল নেতারা। এমনই অভিযোগ জানিয়েছে কটাই।

সিবিআই সূত্রের দাবি, অনুব্রত ঘনিষ্ঠ বিশ্বজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায় এবং মাহিরি গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান ভজা নামের দুই ব্যক্তির মধ্যস্থতায় পুরো ঘটনাটি ঘটেছে। ৮৩ লক্ষ টাকার বিনিময়ে টিকিট হস্তান্তরের কথা হলেও, কার্যক্ষেত্রে মাত্র ৭ লক্ষ টাকা ধরানো হয় তাঁদের।

অন্যদিকে, এদিন 'গাঙ্গুলী লটারি' নামে এক দোকানের মালিক বাপিকে তলব করেছিলেন গোয়েন্দা আধিকারিকরা। জিজ্ঞাসাবাদের পর সিবিআই-র অস্থায়ী ক্যাম্প থেকে বেরিয়ে এসে সংবাদমাধ্যমে বাপি জানান, আসলে লটারি জিতেছিলেন শেখ নুর আলি। মাহিরি গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান ভজা নামের এক ব্যক্তি এ ক্ষেত্রে অনুব্রতর হয়ে মধ্যস্থতা করেন। ৮৩ লক্ষ টাকা দেবেন বলে দুই পক্ষের মধ্যে ঠিক হয়।

শেখ নুর আলি (ডানে)
ঢেকুর তুললেই চুরি, দুর্নীতির গন্ধ বের হয় - নাম না করে শুভেন্দুকে তীব্র কটাক্ষ মীনাক্ষীর
শেখ নুর আলি (ডানে)
উপাচার্যের ইস্তফার দাবিতে রণক্ষেত্র বিশ্বভারতী, পড়ুয়াদের সাথে নিরাপত্তারক্ষীদের সংঘর্ষে রক্তাক্ত ২

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in