‘আমি বরং চুপিই থাকি, কি বলো লকেট?’ - দলবদল প্রসঙ্গে ট্যুইটারে লকেটকে কটাক্ষ বাবুলের

যারা বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছে তারা সকলেই অসম্মানের সাথে রয়েছে। পাশাপশি শোনা যায় তিনি বলেন, বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে গিয়ে তেমন কিছুই পাননি, মূলত রিজার্ভ বেঞ্চেই তাকে রেখে দেওয়া হয়েছে।
‘আমি বরং চুপিই থাকি, কি বলো লকেট?’ - দলবদল প্রসঙ্গে ট্যুইটারে লকেটকে কটাক্ষ বাবুলের
গ্রাফিক্স - নিজস্ব

‘আমি বরং চুপিই থাকি, কি বলো লকেট?’- বিজেপি সাংসদ লকেটকে টুইট করে কার্যত খোঁচা দিলেন প্রাক্তন বিজেপি নেতা বাবুল সুপ্রিয়। আর এই নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গেছে।

সূত্রের খবর, লকেট সাংগঠনিক বৈঠকে বলেছেন যারা বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছে তারা সকলেই অসম্মানের সাথে রয়েছে। পাশাপশি তিনি বলেন, বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে গিয়ে তেমন কিছুই পাননি, মূলত রিজার্ভ বেঞ্চেই তাকে রেখে দেওয়া হয়েছে। আর এই নিয়েই প্রাক্তন সতীর্থ বাবুল সুপ্রিয়র কাছ থেকে কটাক্ষের শিকার হলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। বাবুল সাংসদ লকেটের করা মন্তব্যের জবাব দিয়েছেন ট্যুইটারে । বিজেপি সাংসদের উদ্দেশ্যে ট্যুইট করে জানতে চেয়েছেন, তিনি কি চুপ করে থাকবেন?

সম্প্রতি ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেছেন। রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন আরও অনেক বিজেপি নেতাই তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জন্য পা বাড়িয়ে আছেন এবং সেই তালিকায় নাকি হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের নামও রয়েছে। এই নিয়ে দলীয় নেতা কর্মীদের প্রশ্নের মুখে পড়ে মেজাজ হারিয়েছিলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ। লকেট বলেন, আমাদের কর্মীদের মনোবল দুর্বল করার জন্য বিভিন্ন ধরণের কথা বলা হচ্ছে। ২০১৯ সালে যাঁরা লোকসভা নির্বাচনে জিতিয়েছিলেন, তাঁরা কেউ দল ছেড়ে যাননি। যাঁরা নিজেদের আখের গোছাতে পার্টিতে এসেছেন, তাঁরা চলে যেতে পারেন। তাঁরা চলে গেলে দলটা ফিল্টার হবে।"

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূলে যোগদান করার সময় জানিয়েছিলেন তিনি প্রথম একাদশের খেলোয়াড়। রিজার্ভ বেঞ্চে বসে থাকতে চান না। বিজেপিতে যোগ্য মর্যাদা না পেয়েই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

‘আমি বরং চুপিই থাকি, কি বলো লকেট?’ - দলবদল প্রসঙ্গে ট্যুইটারে লকেটকে কটাক্ষ বাবুলের
WB BJP: "আপনারও নাকি যাওয়ার তালিকায় নাম আছে?" - দলীয় কর্মীদের প্রশ্নে মেজাজ হারালেন লকেট

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in