TMC-BJP: বানারহাটে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থীকে সমর্থন বিজেপির

বুধবারের ভোটাভুটিতে তৃণমূলের ১৪ জন এবং বিজেপির ৫ জন অংশ নিয়েছিলেন। ১৯ জনই সভাপতি পদের জন্য তৃণমূল মনোনীত প্রার্থী সীমা চৌধুরীকে ভোট দিয়েছেন। সহ-সভাপতি হয়েছেন শাসকদলের আরতি মহালি।
TMC-BJP: বানারহাটে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থীকে সমর্থন বিজেপির
পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নির্বাচনে তৃণমূলকে সমর্থন বিজেপিরছবি প্রতীকী সংগৃহীত

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নির্বাচনে তৃণমূলকে সমর্থন করলো বিজেপি। জলপাইগুড়ির ধূপগুড়ির বানারহাট পঞ্চায়েত সমিতির ঘটনা। বুধবার সেখানে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি, উপ-সভাপতি নির্বাচন ছিল। দুটি পদেই তৃণমূলের মনোনীত প্রার্থীকে সমর্থন করেছে বিজেপি। এই ঘটনায় তাজ্জব রাজনৈতিক মহল।

বানারহাট পঞ্চায়েত সমিতিতে ২১ জন সদস‍্যকে নিয়ে বোর্ড গঠন হয়েছে। এর মধ্যে ১৬টি আসন তৃণমূলের এবং ৫টি বিজেপি। বুধবারের ভোটাভুটিতে তৃণমূলের ১৪ জন এবং বিজেপির ৫ জন অংশ নিয়েছিলেন। ১৯ জনই সভাপতি পদের জন্য তৃণমূল মনোনীত প্রার্থী সীমা চৌধুরীকে ভোট দিয়েছেন। সহ-সভাপতি হয়েছেন শাসকদলের আরতি মহালি।

তৃণমূল মনোনীত প্রার্থীকে বিজেপি সদস‍্য কর্তৃক সমর্থনের পর তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করেছেন জলপাইগুড়ি জেলার তৃণমূলের সভানেত্রী মহুয়া গোপ। তিনি দাবি করেছেন, জেলার সমস্ত বিজেপি জনপ্রতিনিধিদের তৃণমূলে যোগদান এখন সময়ের অপেক্ষা। মানুষ উন্নয়ন চাইছে।

প্রসঙ্গত, ধূপগুড়ি ব্লক থেকে বানারহাটকে পৃথক ব্লক হিসেবে ঘোষণা করার দাবিতে দীর্ঘদিন লড়াই করেছে বামফ্রন্ট। স্থানীয়রাও বামফ্রন্টের এই লড়াইয়ে সামিল হয়েছিলেন। অবশেষে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বানারহাটকে পৃথক ব্লক হিসেবে ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ব্লক গঠনের পর প্রায় এক বছর কেটে গেলেও সমিতি গঠনের কাজ এতোদিন আটকে ছিল। তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই তা আটকে ছিল বলে জানা গেছে। গতকাল সভাপতি ও উপ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি আসনগুলোর কর্মাধ্যক্ষ পরে নির্বাচন করা হবে বলে সূত্রের খবর।

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নির্বাচনে তৃণমূলকে সমর্থন বিজেপির
Mukul Roy: 'ভারতীয় জনতা পার্টি মানেই তৃণমূল', অনুব্রতর পাশে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের সামনে বললেন মুকুল

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in