Amul: বিতর্কিত 'কেষ্টা বেটাই চোর' পোস্টার সোশ্যাল মিডিয়া থেকে তুলে নিল আমূল

জন্মাষ্টমীর দিন মাখনের সাথে ‘কেষ্টা বেটাই চোর!’ লিখে একটি পোস্টার শেয়ার করে আমূল। যা নিয়ে তুঙ্গে ওঠে রাজনৈতিক তরজা। সেই বিতর্কিত পোস্টার নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া ওয়াল থেকে তুলে দিল জনপ্রিয় সংস্থাটি।
আমূলের জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা
আমূলের জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছাছবি সৌজন্যে আমূল বাংলা ফেসবুক পেজ

ভাইরাল হওয়া ‘কেষ্টা বেটাই চোর!’ পোস্টার নিজেদের ফেসবুক পেজ থেকে মুছে দিল আমূল। একদিনের মধ্যেই পোস্টার মুছে দেওয়ার কারণ নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।

জন্মাষ্টমীর দিন মাখনের সাথে ‘কেষ্টা বেটাই চোর!’ লিখে একটি পোস্টার শেয়ার করে আমূল। যা নিয়ে তুঙ্গে ওঠে রাজনৈতিক তরজা। সেই বিতর্কিত পোস্টার নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া ওয়াল থেকে তুলে দিল জনপ্রিয় সংস্থাটি। আমূলের ফেসবুক পেজে গেলে আর দেখা যাচ্ছে না ঐ বিজ্ঞাপনটি। কিন্তু হঠাৎ তুলে নেওয়ার কারণ স্পষ্ট করেনি আমূল।

উল্লেখ্য আমূলের পোস্টটি শেয়ার করার পর থেকেই তৃণমূলের পক্ষ থেকে আপত্তিও জানানো হয়। তৃণমূলের এক নেতার মুখে শোনা যায় আমূল যেহেতু গুজরাটের কোম্পানি তাই এই ধরণের বিজ্ঞাপন দিচ্ছে। এছাড়া আরও অনেকে এই বিজ্ঞাপনের বিরোধিতা করেন।

প্রসঙ্গত, আমূল বরাবরই নিজের বিজ্ঞাপনে অভিনবত্বের ছোঁয়া রাখে। জন্মাষ্টমীতেও সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখে তারা। আমূল বাংলার সোশ্যাল মিডিয়া পেজে জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি পোস্টার প্রকাশ করা হয়। পোস্টারে একটি অর্ধেক খাওয়া মাখনের প্যাকেট দেখা যায়। এই প্যাকেটের পাশে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জনপ্রিয় 'পুরাতন ভৃত্য' কবিতার তিনটি শব্দ লেখা রয়েছে - 'কেষ্টা বেটাই চোর'। প্রচলিত আছে, মাখন কৃষ্ণের অতন্ত্য পছন্দের খাবার, যা প্রায়ই তিনি চুরি করে খেতেন। কৃষ্ণকে শব্দভ্রংশে কেষ্টা নামেও ডাকা হয়।

আমূলের এই অভিনব পোস্টকে কুর্নিশ জানান রসিকতাপ্রিয় বাঙালিরা। এই পোস্টের মাধ্যমে যেমন জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানানো হয়, তেমনই সদ্য গ্রেফতার হওয়া তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতাকে খোঁচা দেওয়াও হয়েছে বলে মনে করছেন তাঁরা। কারণ অনুব্রত মণ্ডল 'কেষ্ট' নামেই অধিক জনপ্রিয়।

আমূলের জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা
'কেষ্টা বেটাই চোর!' - আমূলের জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছাতে অনুব্রত-প্রসঙ্গ? রসিকতায় মজলো নেটদুনিয়া

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in