২১ শে জুলাই তৃণমূল-বিজেপির জোড়া সভা নিয়ে মামলা কলকাতা হাইকোর্টে, রায়দান হতে পারে আজই

সঞ্জীবকুমার মুখার্জী আদালতে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। তাঁর বক্তব্য, রাজ্যে ফের বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কলকাতার বুকে বিশাল পরিমাণ লোকের জমায়েত হলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যাবে না।
২১ শে জুলাই তৃণমূল-বিজেপির জোড়া সভা নিয়ে মামলা কলকাতা হাইকোর্টে, রায়দান হতে পারে আজই
গ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

কলকাতা হাইকোর্টে তৃণমূলের শহীদ দিবস নিয়ে মামলার রায়দান হতে চলেছে মঙ্গলবার সন্ধ্যার মধ্যে। শহীদ দিবসের সভা ভার্চুয়াল করার দাবি নিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছিল। পাশাপাশি ২১ জুলাই উলুবেড়িয়াতে সভা বাতিল করার নির্দেশের বিরুদ্ধে আদালতে যায় বিজেপি। সেই মামলার রায়ও দিতে পারে হাইকোর্ট।

২১ জুলাই শহীদ দিবস নিয়ে রাজ্যজুড়ে প্রচার জোরকদমে চলেছে। ১০-১২ লক্ষ লোকের জমায়েত হবে বলে দলীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে। কিন্তু ঐ সভা প্রকাশ্যে হবে কি ভার্চুয়াল তা এখনও নিশ্চিত হয়নি। কারণ রাজ্যে কোভিড পরিস্থিতিকে সামনে রেখে চিকিৎসক সঞ্জীবকুমার মুখার্জী আদালতে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। তাঁর বক্তব্য, রাজ্যে ফের বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কলকাতার বুকে বিশাল পরিমাণ লোকের জমায়েত হলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যাবে না। সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে যাবে।

মঙ্গলবার এই মামলার রায় দেবে বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ। এদিন বেঞ্চের পক্ষ থেকে বলা হয়, শহীদ দিবসকে কেন্দ্র করে আরও অনেক মামলা দায়ের হতে পারে। সমস্ত মামলা পর্যালোচনা করে সন্ধ্যের মধ্যে রায় দান করা হবে। যদিও রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল আদালতে দাবি করেন, সমাবেশ খোলা জায়গায় হবে। সমস্ত কোভিড বিধি মেনেই হবে। তাই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কোনও আশঙ্কা নেই।

অন্যদিকে বিজেপির করা একটি মামলারও রায় দান করবে আদালত। বিজেপির অভিযোগ, ২১ জুলাই শুভেন্দু অধিকারী উলুবেড়িয়ায় একটি জনসভা করবেন। কিন্তু পুলিশ তার অনুমতি দেয়নি। বিজেপির আইনজীবীকে আদালত প্রশ্ন করে, ২১ জুলাই দিনটি বেছে নেওয়ার কারণ কী? ঐ দিনের বদলে কেন অন্যদিনে সভা নয়? প্রশ্নের জবাবে পদ্ম শিবিরের আইনজীবী জানান, এটি অনেক আগে থেকেই ঠিক করা হয়েছিল। সেইমতো সবরকম প্রস্তুতিও নেওয়া হয়েছে। এরপরে বন্ধ করে দেওয়ার কোনও মানে নেই।

আদালতের বিচারপতি এও বলেন, এটা কোনও বিশেষ মনীষীর জন্মদিন নয় যে ঐ দিনই পালন করতে হবে। ২১ এর পরিবর্তে ২২ বা ২৩ জুলাই সভা করা যেতেই পারে। নির্দিষ্ট কারণ দর্শাতে না পেরে কিছুটা সময় চেয়ে নেন বিজেপির আইনজীবী। এদিন বিকেলেই মামলার রায়দান হবে বলে জানা যাচ্ছে।

২১ শে জুলাই তৃণমূল-বিজেপির জোড়া সভা নিয়ে মামলা কলকাতা হাইকোর্টে, রায়দান হতে পারে আজই
২১ জুলাই: দু'বছর পর ধর্মতলায় TMC-র শহীদ দিবস! পঠনপাঠন বন্ধ রাখছে একাধিক স্কুল কর্তৃপক্ষ

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in