মমতার লাইভে বনমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মন্তব্যে বিপাকে TMC কর্মী, পুলিশের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ পরিবারের

দলের কর্মীর এমন আচরণে ক্ষিপ্ত দলেরই বিভিন্ন নেতারা। সিন্টুর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানান আর এক তৃণমূল কর্মী। সিন্টুর বাড়ির লোকেদের অভিযোগ সিনটুকে না পেয়ে পুলিশ তাঁদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেছে।
মমতার লাইভে বনমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মন্তব্যে বিপাকে TMC কর্মী, পুলিশের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ পরিবারের
মমতা ব্যানার্জীফাইল ছবি

মমতা ব্যানার্জীর ফেসবুক লাইভে বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে তীব্র আক্রমণ করেছিলাম তাঁরই দলেরই এক কর্মী সিন্টু ভট্টাচার্য। এরপর থেকেই নিখোঁজ ওই তৃণমূল কর্মী। এমনটাই অভিযোগ তাঁর পরিবারের।

ঘটনার সূত্রপাত একটি ফেসবুক লাইভকে কেন্দ্র করে। কিছুদিন আগে দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতা-মন্ত্রীদের নিয়ে বৈঠক করছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফেসবুকের লাইভ সম্প্রচার করা হচ্ছিল সভাটির। সেখানেই জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেন সিন্টু ভট্টাচার্য, যিনি বনগাঁর ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা তথা এলাকায় তৃণমূল কর্মী হিসেবেই পরিচিত।জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে বালু মল্লিক বলে উল্লেখ করেন তিনি। কমেন্ট বক্সে তিনি লেখেন, "বালু মল্লিক উত্তর ২৪ পরগনাটা শেষ করছে, দিদি দয়া করে নজর দিন।"

দলের কর্মীর এমন আচরণে ক্ষিপ্ত হয়েছেন দলেরই বিভিন্ন নেতারা। এমনকী সিন্টুর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানান আর এক তৃণমূল কর্মী। স্থানীয় সূত্রের খবর, সিনটুর খোঁজে পুলিশ তাঁর বাড়ি গেলে পুলিশকে খালি হাতে ফিরতে হয়। সিন্টুর বাড়ির লোকেদের অভিযোগ সিনটুকে না পেয়ে পুলিশ তাঁদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেছে।

সিন্টুর পুলিশের রোষানলে পড়া নিয়ে বিরোধীদের কটাক্ষ, যেখানে নিজেদের দলীয় কর্মীকেই পুলিশ দিয়ে ভয় দেখানো হয় সেখানে কী করে সাধারণ মানুষ নিরপেক্ষ শাসন ব্যবস্থা পেতে পারে।

এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো রাজ্য রাজনীতিতে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক একটি বিতর্কিত নাম। কখনো তিনি সিপিআইএম কর্মীদেরকে উত্তম-মধ্যম দিতে বলেছেন তো কখনো সিপিআইএমকে বর্জন করার নির্দেশ দেন। রাজ্যের মন্ত্রীর যদি এমন মনোভাব হয় তাহলে রাজ্য থেকে ধীরে ধীরে সৌজন্যের রাজনীতি হারিয়ে যাবে বলে অনেকে মন্তব্য করেছিলেন।

মমতা ব্যানার্জী
DYFI: ১১ বছর ধরে ঘটে চলা সমস্ত অনৈতিকতার যোগ্য জবাব দেবে যুবরা - সব্যসাচী চক্রবর্তী

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.