পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়
পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়গ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

SSC Corruption: অর্পিতা মুখার্জির বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাটে আরও দুই সংস্থার হদিশ

মৃন্ময় মালাকার এবং রণেশ কুমার সিং কারা? জানা যাচ্ছে এই দুই ব্যক্তি অনন্ত টেক্সফ্যাব প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক। যে সংস্থা ২৩ মার্চ, ২০১২-তারিখে নিবন্ধিত একটি কোম্পানি।

মৃন্ময় মালাকার এবং রণেশ কুমার সিং কারা? জানা যাচ্ছে এই দুই ব্যক্তি অনন্ত টেক্সফ্যাব প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক। যে সংস্থা ২৩ মার্চ, ২০১২-তারিখে নিবন্ধিত একটি কোম্পানি। আরও জানা গেছে, বর্তমানে এই সংস্থা চালু আছে এবং গত ৩১ মার্চ, ২০২১ পর্যন্ত তার বার্ষিক রিটার্ন এবং আর্থিক বিবরণী দাখিল করেছে।

যতক্ষণ না কেউ এই রেজিস্ট্রিকৃত ঠিকানা পরীক্ষা না করে দেখছে ততক্ষণ পর্যন্ত এই সমস্ত কিছুতে ভুল নেই। যদিও পরীক্ষা করতে গেলে সামনে উঠে আসছে বেশ কিছু তথ্য।

৮এ, ব্লক-৫, ক্লাব টাউন হাইটস, বেলঘরিয়া, কলকাতার এই ঠিকানাতেই এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পার্থ চ্যাটার্জি এবং তার সহযোগী অর্পিতা মুখার্জির বিরুদ্ধে তদন্তের অংশ হিসাবে গত ২৭ জুলাই অভিযান চালায়। যে অভিযানে ২৭.৯০ কোটি টাকা নগদ এবং ৪.৩১ কোটি টাকার সোনা রূপোর গয়না পাওয়া গেছে। এছাড়াও উদ্ধার করা হয়েছে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি।

শুক্রবার, ইডি অনন্ত টেক্সফ্যাব প্রাইভেট লিমিটেড সম্পর্কে বিশেষ আদালতকে জানায় এবং দাবি করে অর্পিতা মুখার্জি এই কোম্পানির মাধ্যমে পার্থ চ্যাটার্জির পরিবারের সদস্যদের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রেখেছিলেন। এই কোম্পানির অথোরাইসড ক্যাপিটাল মাত্র ২ লক্ষ টাকা এবং পেইড আপ ক্যাপিটাল ১.৫ লক্ষ টাকা।

এই কোম্পানীকে ব্যবহার করে পার্থ চ্যাটার্জি এবং অর্পিতা মুখার্জি স্কুলের শিক্ষক এবং অ-শিক্ষক কর্মীদের নিয়োগ দুর্নীতির টাকা পাচারের জন্য ব্যবহার করেছিলেন কিনা সেই বিষয়ে ইডি এখন তদন্ত করে দেখছে।

প্রসঙ্গত, মৃন্ময় মালাকারের সঙ্গে আরও কয়েকটি কোম্পানির যোগসূত্র রয়েছে। তিনি অন্তত আরও দুটি চালু কোম্পানির পরিচালক। এর মধ্যে একটি হল ভিউমোর হাইরাইজ প্রাইভেট লিমিটেড। যে সংস্থা ১৪ মার্চ, ২০২১-এ রেজিস্ট্রি করা হয়। এই কোম্পানির নিবন্ধিত ঠিকানাও হল ফ্ল্যাট নং ৮এ, ব্লক-৫, ক্লাব টাউন হাইটস, বেলঘরিয়া, কলকাতা। কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রকের মতে, এই কোম্পানির ব্যালেন্স শীট শেষবার ৩১ মার্চ, ২০১৯-এ ফাইল করা হয়।

মৃন্ময় মালাকারের সাথে যুক্ত আরও কিছু কোম্পানি আছে। কিন্তু তাদের নিবন্ধিত অফিসগুলি কলকাতার সেন্ট্রাল বিজনেস ডিস্ট্রিক্টে রয়েছে৷ রণেশ কুমার সিং এর সাথে অন্যান্য কোম্পানির যোগসূত্র রয়েছে।

শুক্রবার বিশেষ আদালত পার্থ চ্যাটার্জি এবং অর্পিতা মুখার্জি – দুজনকেই ১৪ দিনের জন্য বিচার বিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়েছে।

এক ইডি আধিকারিক জানিয়েছেন, এই সময়ের মধ্যে, ইডি তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে যাবে। আগামী দিনে আরও গুরুতর অপরাধ প্রকাশ পেলে সাধারণ মানুষের অবাক হওয়া উচিত নয়।

পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়
'বামপন্থার পথিকৃৎ' - মুজফফর আহমেদ স্মৃতি পুরষ্কার গ্রহণ করে আপ্লুত অমর্ত্য সেন

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in