SSC Scam: আন্দোলন করলেই চাকরি দিতে হবে নাকি? - চাকরিপ্রার্থীদের উদ্দেশ্যে ব্রাত্য বসু

গত ৫৯৬ দিন ধরে ধর্মতলায় চাকরির দাবিতে ধর্না দিচ্ছেন চাকরিপ্রার্থীরা। একাধিক মামলাও চলছে হাইকোর্টে। এর মধ্যেই বিতর্কিত মন্তব্য করলেন ব্রাত্য বসু।
ব্রাত্য বসু
ব্রাত্য বসুগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

আন্দোলন করলেই তো চাকরি পাওয়া যাবে না। সাফ জানিয়ে দিলেন রাজ্যের বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। শিক্ষামন্ত্রীর এই মন্তব্যে ক্ষুব্ধ আন্দোলনকারীরা।

গত ৫৯৬ দিন ধরে ধর্মতলায় চাকরির দাবিতে ধর্না দিচ্ছেন চাকরিপ্রার্থীরা। একাধিক মামলাও চলছে হাইকোর্টে। এর মধ্যেই বিতর্কিত মন্তব্য করলেন ব্রাত্য বসু। তিনি বলেন, "জয়েন্ট দিয়ে সবাই চিকিৎসক বা ইঞ্জিনিয়ার হয় না। নেট পাস করেই সকলে চাকরি পায় না। সব কিছুরই নিয়ম আছে। আন্দোলন করলেই তো আর চাকরি পাওয়া যাবে না। বরং আন্দোলনের ফলে নিয়োগ প্রক্রিয়া ব্যাহত হতে পারে।"

পূর্বে ভুল হয়েছে একথা স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেন, "নিয়োগ সম্পূর্ণ মেধার ভিত্তিতে ও স্বচ্ছভাবে হবে। দুর্নীতিকে কোন ভাবেই প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। পূর্বে যা ভুল হয়েছে তা সংশোধন করা হচ্ছে। সকলেরই সহযোগিতা কাম্য। পাশাপাশি নতুন নিয়োগও আমাদেরকে চালু করতে হবে।"

নিয়োগ প্রক্রিয়া ব্যাহত হওয়ার জন্য বিরোধী দলগুলিকে দায়ী করেছেন তিনি। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা বার বার আন্দোলনকারীদের সাথে কথা বলেছি। সমস্ত জট কাটানোর চেষ্টা করেছি। বিরোধী দলগুলি চায় না চাকরিপ্রার্থীদের নিয়োগ হোক। তাই ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।

এর আগে নিয়গের দাবিতে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেছিলেন প্রাথমিক শিক্ষাপর্ষদের সভাপতি গৌতম পাল। তিনি বলেছিলেন, ‘গণতান্ত্রিক দেশে প্রত্যেকের আন্দোলন করার অধিকার রয়েছে। কিন্তু, চাকরিপ্রার্থীদের অন্যায্য দাবি মানা যায় না। বহু স্তরীয় বা এক স্তরীয় কিছু রাজনৈতিক ব্যক্তি বা রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান, তাঁরা কিন্তু যেনতেন প্রকারণে এই ধরণের আন্দোলনকে অনুপ্রানিত করেছে। আগামীদিনে বোর্ড যে নিয়োগ করতে যাচ্ছে, যেনতেন প্রকারণে সেটাকে বাঁধা দিয়ে এই আন্দলনকে জিইয়ে রাখার প্রচেষ্টা করছেন।’

অন্যদিকে সোমবার আরও ১৪ দিনের জেল হেফাজত হল নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়, সুবীরেশ ভট্টাচার্য, শান্তিপ্রসাদ সিনহা, প্রদীপ সিং, প্রসন্ন কুমার রায়, অশোক সাহা ও পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জামিনের আবেদন করলে তা খারিজ হয়ে যায়।

ব্রাত্য বসু
Saradha Scam: নিলামে উঠবে সারদার সম্পত্তি, নয়া তারিখ প্রকাশ সেবির, আবেদনের শেষ দিন কবে?
ব্রাত্য বসু
JU: চরম অর্থসংকটে ভুগছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, প্রাক্তনীদের কাছ থেকে অর্থ সাহায্য উপাচার্যের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in