দুর্নীতির পাহাড় সামনে আসছে, তাই উনি 'ওদিকে' তাকাতে বারণ করছেন - মমতার মন্তব্যে প্রতিক্রিয়া সেলিমের

"টাকার পাহাড় বেরিয়ে এসেছে। রাইস মিল, গাড়ি প্রতিদিন বের হচ্ছে। দুর্নীতির পাহাড় সামনে আসছে। তাই উনি 'ওদিকে' তাকাতে বারণ করছেন। বাস্তবতাকে স্বীকার না করে উনি কী করে তার মোকাবিলা করবেন?" - সেলিম
মমতা ব্যানার্জী এবং মহ: সেলিম
মমতা ব্যানার্জী এবং মহ: সেলিমগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

'ওদিকে' তাকাবেন না। মা দুর্গার দিকে তাকাবেন। যদিও 'ওদিক' বলতে ঠিক কোনদিকে ইঙ্গিত করলেন তিনি ? আর কেনই বা তাকানো যাবে না 'ওদিকে'? তা স্পষ্ট নয়। যদিও স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গীতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের উত্তরে সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিম জানান - 'দুর্নীতির পাহাড় সামনে আসছে। তাই উনি 'ওদিকে' তাকাতে বারণ করছেন।'

সোমবার, নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুজো কমিটিগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন মমতা। বৈঠক থেকেই রাজ্যের ৪৩ হাজার পুজো কমিটিকে অনুদান হিসেবে এই বছর ৬০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন তিনি। গত বছর এই অনুদানের পরিমাণ ছিল ৫০ হাজার টাকা। অর্থাৎ, একলাফে ১০ হাজার টাকা বাড়ানো হল। এছাড়াও, বিদ্যুৎ বিলে যেখানে গত বছর ছাড় ছিল ৫০ শতাংশ, সিইএসসি ও ডব্লিউবিসিডিসিএল-কে এ বছর তা বাড়িয়ে ৬০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার অনুরোধ করেছেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্য প্রসঙ্গে সিপিআই(এম) রাজ্য সম্পাদক মহ: সেলিম জানিয়েছেন - "টাকার পাহাড় বেরিয়ে এসেছে। রাইস মিল, গাড়ি প্রতিদিন বের হচ্ছে। দুর্নীতির পাহাড় সামনে আসছে। তাই উনি 'ওদিকে' তাকাতে বারণ করছেন। বাস্তবতাকে স্বীকার না করে উনি কী করে তার মোকাবিলা করবেন? আসলে অপরাধপ্রবণতা কখনও লুকিয়ে রাখা যায় না। এটা তারই বহিঃপ্রকাশ।"

প্রসঙ্গত, সারা রাজ্যজুড়ে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ আসছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে, জেল হেফাজতে দিন কাটছে পার্থ ও তাঁর ঘনিষ্ঠ অর্পিতার। অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে কোটি কোটি টাকা সহ বিপুল পরিমাণ গয়না। হদিশ মিলেছে একাধিক সম্পত্তির। মুখমন্ত্রীর অত্যন্ত প্রিয় অনুব্রত মণ্ডল গোরু পাচার মামলায় সিবিআই হেফাজতে। বাড়ি, গাড়ি, বিপুল আর্থিক সম্পত্তি, নিত্যনতুন চালকলের মালিক হিসাবে নাম জড়াচ্ছে তাঁর।

এছাড়াও, আয়ের সাথে সঙ্গতিহীন সম্পত্তি মামলায় নাম জড়িয়েছে ১৯ জন নেতা-মন্ত্রীর। আদালত তদন্তভার দিয়েছে ইডিকে। সেখানে এইসব দিক থেকে রাজ্যবাসীর নজর ঘোরাতেই কী তবে 'ওদিকে' তাকাবেন না বললেন মমতা? প্রশ্ন উঠছে বিরোধী মহলে।

উল্লেখ্য, এ বছরই রাজ্যের দুর্গাপুজোকে আবহমান সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান দিয়েছে ইউনেসকো। সোমবারের বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, "এ বার পুজো শুরু হয়ে যাবে ১ সেপ্টেম্বর থেকে। কেমন পুজো হচ্ছে দেখতে, দেশ-বিদেশ থেকে মানুষ আসবেন। তাই ১ সেপ্টেম্বর আমরা মিছিল করব।"

১ সেপ্টেম্বরের মিছিলে যোগ দেওয়ার জন্য ওইদিন দুপুর ১টায় সমস্ত সরকারি অফিস ছুটি দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনকি সরকারি স্কুলগুলিকে আগে থেকেই ছুটি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। জেলায় জেলায় একই সময়ে এই মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

মমতা ব্যানার্জী এবং মহ: সেলিম
Aadhar Voter I Card Link: আধার জমা না দিলেও ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া যাবে না নাম - নির্বাচন কমিশন

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in