মুখ্যমন্ত্রীকে 'কাছের মানুষ' বললেন সৌরভ, 'রাজনীতিতে এলে ভালোই করবে' - মন্তব্য ডোনার

বাইপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পাশাপাশি দেখা যায় সস্ত্রীক সৌরভ ও ফিরহাদ হাকিমকে। সৌরভ বলেন, মুখ্যমন্ত্রী তাঁর আবেদন পাওয়া মাত্রই সবরকম সাহায্য করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে।
মুখ্যমন্ত্রীকে 'কাছের মানুষ' বললেন সৌরভ, 'রাজনীতিতে এলে ভালোই করবে' - মন্তব্য ডোনার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌরভ গাঙ্গুলীফাইল চিত্র - সংগৃহীত

শুক্রবার বঙ্গসফরে এসেই দেশের প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক তথা বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী-র বাড়িতে নৈশভোজ সারলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী সহ আরও চারজন বিজেপি নেতা। ফুলের তোড়া দিয়ে শাহকে স্বাগতম জানান সস্ত্রীক সৌরভ। সাথে ছিল রাজকীয় আয়োজন।

নৈশভোজের পরের দিনই বাইপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পাশাপাশি দেখা যায় সস্ত্রীক সৌরভ ও ফিরহাদ হাকিমকে। সৌরভ বলেন, মুখ্যমন্ত্রী তাঁর আবেদন পাওয়া মাত্রই সবরকম সাহায্য করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে।

অনুষ্ঠান মঞ্চে সৌরভ বলেন, "মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার কাছের মানুষ।" অনুষ্ঠান শেষে ডোনা বলেন, “দিদি তো অবশ্যই আমাদের কাছের।” পাশাপাশি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, "সৌরভ রাজনীতিতে এলে ভালোই করবে।'' তাঁর দাবি - "গতকাল নৈশভোজে কোনও রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি। জল্পনা করাই তো মানুষের কাজ। যদি কোনও খবর থাকে তবে তা সবাই জানতে পারবেন।’’

এদিন ববি হাকিমের উদ্দেশ্যে সৌরভ বলেন, মন্ত্রী ববির কাছে মানুষ সাহায্যের জন্য গিয়ে নিরাশ হন না। অন্যদিকে শুক্রবার সৌরভের বাড়িতে অমিত শাহের নৈশভোজের ঘটনা নিয়ে শনিবার সকালেই নেটমাধ্যমে তীব্র কটাক্ষ করেন তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারী। দেশের ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ককে ‘আলালের ঘরে দুলাল’ বলে কটাক্ষ করেন তিনি।

সেই সঙ্গে লেখেন, ‘আজকে যখন সে এক চরম বাঙালি বিদ্বেষী, বাংলা ভাষা-সাহিত্য-সংস্কৃতি বিরোধী, বাংলা ভাগের চক্রান্তকারী ব‍্যাক্তিকে আদর, আপ‍্যায়ন করে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ভূরিভোজ করায়— সৌরভকে নয়, যারা তাকে বাঙালির আইকন বলে ধেই ধেই নাচে, তাদের দেখে করুণা হয়।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌরভ গাঙ্গুলী
'৩৪ বছর ধরে সিপিএম যা করতে পারেনি তা তৃণমূল সরকার করে দেখিয়েছে' - মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.