পরিযায়ী শ্রমিকদের দেওয়া মোদি সরকারের প্রতিশ্রুতি পালনের দাবিতে জমায়েত যন্তরমন্তরে

মহামারীকালে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, সেই প্রতিশ্রুতি পালনের দাবিতে এবার যন্তরমন্তরে জমায়েত
পরিযায়ী শ্রমিকদের দেওয়া মোদি সরকারের প্রতিশ্রুতি পালনের দাবিতে জমায়েত যন্তরমন্তরে
ছবি- প্রতীকী

নয়াদিল্লি, ১৯ মার্চ: মহামারীকালে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, সেই প্রতিশ্রুতি পালনের দাবিতে এবার যন্তরমন্তরে জমায়েত হয়ে দাবি জানালেন হকার, যৌনকর্মী, পরিচারক, চুক্তিবদ্ধ শ্রমিক এবং অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকরা। অল ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক অফ সেক্স ওয়ার্কার্স-এর তরফে কুসুম জানান, 'লকডাউনে যৌনকর্মীদের আয়ের কোনও পথ ছিল না। সরকার স্কুলে খাবার পাঠিয়েছে, কিন্তু তারা এটা দেখেনি যে, শ্রমিকরা স্কুলের থেকে বহু কিলোমিটার দূরে রয়েছে। আমরা খিদেয় মরে গেলেও সেখানে কোনও আত্মনির্ভর ভারত আসেনি। কী করে আমি বলবো, আমার দেশ মহান?'

ছবি- প্রতীকী
লকডাউন : ৪২ শতাংশ পরিযায়ী শ্রমিকের কাছে কোনো রেশন নেই - সমীক্ষা

তিনি আরও জানান, পরিযায়ী শ্রমিকরা সরকারের কোনও প্রকল্পের সুবিধাই পাননি অনেকের কাছেই নিজেদের পরিচয়পত্র নেই। সমস্ত অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের অন্ততপক্ষে ১০ হাজার টাকা আয়ের দাবিও জানান তিনি। মুজফফরনগরের বাসিন্দা নীতিন কুমার হরিদ্বারে চুক্তিবদ্ধ শ্রমিকের কাজ করেন। তিনি দাবি করেছেন, এই সময়ে তাকে কাজ দেওয়া মালিক কোনওরকম টাকা দিতে অস্বীকার করে। কাজের জায়গা থেকে পায়ে হেঁটে বাড়ি ফেরার পর লকডাউন উঠে দেলে পঞ্জাবে ইটভাটায় কাজ করতে যান। সেখানেও একটি দল তাকে চুক্তিবদ্ধ কাজের দিকে ঠেলে যায়। পরে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। ২৫ দিনে মাত্র ১ হাজার টাকা দেওয়া হতো তাকে। কিন্তু তাদের আর কোনও উপায় না থাকায় এই টাকায় কাজ করতেই হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in