Tripura: বিজেপির টিকিটে আর নির্বাচনে লড়বেন না সুদীপ রায় বর্মন, তবে কী বিজেপি ছাড়ছেন!

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সঙ্গে সুদীপ রায় বর্মনের দূরত্ব ক্রমশই বাড়ছে। গত লোকসভা ভোটের পর তাঁর মন্ত্রীত্ব কেড়ে নেওয়া হয়। গেরুয়া শিবিরে কার্যত একঘরে সুদীপবাবু।
Tripura: বিজেপির টিকিটে আর নির্বাচনে লড়বেন না সুদীপ রায় বর্মন, তবে কী বিজেপি ছাড়ছেন!
সুদীপ রায় বর্মন, বিপ্লব দেবফাইল চিত্র

বিক্ষুব্ধ বিজেপি নেতা-বিধায়কের দলের নাম লেখালেন বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে লড়বেন না, তা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন। বেশ কিছুদিন ধরেই দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছিল তাঁর। ফলে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা চলছিল যে খুব শীঘ্রই তিনি দল ছাড়তে পারেন।

তাছাড়া যেহেতু গত বেশ কয়েকদিন ধরে বিক্ষুব্ধদের দল ছাড়ার পর্ব চলছে, তাই সুবীরবাবুর ক্ষেত্রেও এই জল্পনা আরও জোরদার হয়ে উঠেছিল। এবার সেই জল্পনায় সীলমোহর দিলেন বিক্ষুব্ধ এই বিজেপি বিধায়ক। সূত্র বলছে, সুদীপবাবুর কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। তবে তিনি একা নন, আর এক বিক্ষুব্ধ বিধায়ক আশিস রায়ও সঙ্গী হতে পারেন তাঁর।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সঙ্গে সুদীপ রায় বর্মনের দূরত্বের কথা সবাই জানেন। গত লোকসভা ভোটের পর তাঁর মন্ত্রীত্ব কেড়ে নেওয়া হয়। গেরুয়া শিবিরে কার্যত একঘরে সুদীপবাবু। তাঁর অনুগামীরা একটি রক্তদান শিবির আয়োজন করেছিলেন কয়েকদিন আগে। সেই শিবির ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বিজেপির আর একটি অংশের বিরুদ্ধে।

এরপরে ক্ষোভে ফেটে পড়েন তিনি। বিজেপির টিকিটে বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না। বিজেপির প্রতি তাঁর আগ্রহ শেষ। এরইমধ্যে সূত্রে জানা গিয়েছে, আর এক বিধায়ক আশিস দাস দল ছাড়তে পারেন। তিনি অবশ্য আগে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন।

রাজনৈতিক মহলে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, সুদীপ রায় বর্মন-সহ বেশ কয়েকজন বিক্ষুব্ধ বিজেপি নেতার সঙ্গে তৃণমূলের পক্ষ থেকে কথা বলা হয়েছে। ফলে প্রশ্ন উঠছে, সুদীপবাবু ও তাঁর অনুগামীরা কী তাহলে গেরুয়া শিবির ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে পা রাখছেন। যদিও জল্পনার কোনও সঠিক উত্তর পাওয়া যায়নি। তবে রাজনৈতিক মহলের ধারণা, পুরনো দল কংগ্রেসেই ফিরতে চলেছেন সুদীপ রায় বর্মন ও আশিস রায়।

সুদীপ রায় বর্মন, বিপ্লব দেব
ত্রিপুরায় গণতন্ত্র নেই, মুখ্যমন্ত্রী মানসিকভাবে বিকৃত: বিপ্লব দেবকে বেনজির আক্রমণে BJP বিধায়করা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in