Telangana: বিধায়ক কেনাবেচা মামলায় নয়া মোড়, BJP-র সাধারণ সম্পাদক বিএল সন্তোষকে তলব তদন্তকারী দলের

তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি (TRS) বিধায়কদের কাছে '১০০ কোটি টাকার প্রস্তাব' দেওয়ার অভিযোগে, গত মাসে হায়দরাবাদের আজিজ নগরের একটি খামার বাড়ি থেকে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।
বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ এবং TRS প্রধান চন্দ্রশেখর রাও
বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ এবং TRS প্রধান চন্দ্রশেখর রাওফাইল ছবি

‘বিধায়ক কেনাবেচা’ (Horse Trading) কান্ডে নয়া মোড় তেলেঙ্গানায় (Telangana)। শাসক দল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (TRS)-র ৪ বিধায়ক 'কেনা'র চেষ্টার অভিযোগে, শীর্ষ বিজেপি নেতা বিএল সন্তোষ (B. L. Santhosh)-কে তলব করেছে তেলেঙ্গানা পুলিশ (Telangana Police)। সূত্রের খবর, নোটিশে আগামী ২১ নভেম্বর, বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বিএল সন্তোষকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। না হলে তাঁকে গ্রেফতার করা হবে।

সম্প্রতি, তেলেঙ্গানা হাইকোর্ট জানিয়েছে, 'ঘোড়া (পড়ুন-বিধায়ক) কেনাবেচার' অভিযোগ নিয়ে তদন্ত করতে পারবে পুলিশ। আর, এটি হবে একজন বিচারকের পর্যবেক্ষণে। আদালতের এই রায়ের পরেই- শীর্ষ বিজেপি নেতা বিএল সন্তোষকে তলব করেছে তেলেঙ্গানা পুলিশ।

তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি (TRS) বিধায়কদের কাছে '১০০ কোটি টাকার প্রস্তাব' দেওয়ার অভিযোগে, গত মাসে হায়দরাবাদের আজিজ নগরের একটি খামার বাড়ি থেকে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। তবে, তাঁরা জামিনে রয়েছে।

গত ২৮ অক্টোবর, এই কাণ্ডে প্রধান অভিযুক্ত রামচন্দ্র ভারতী ওরফে সতীশ শর্মা ওরফে স্বামীজির সঙ্গে টেলিফোনিক কথাবার্তার একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ করেন TRS বিধায়ক পাইলট রোহিত রেড্ডি (Pilot Rohit Reddy)।

তিনি দাবি করেন, ঐ ব্যক্তি তাঁদের প্রস্তাব মেনে না নিলে সিবিআই-এর মাধ্যমে মামলার হুমকি দেন। আর বলেন, তাঁদের প্রস্তাব মেনে নিলে কেন্দ্র থেকে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেওয়া হবে। স্বামীজি বলেন, 'আপনার যত্ন নেওয়া আমাদের দায়িত্ব। আপনি যখন আমাদের স্ক্যানারের অধীনে থাকবেন, তখন ইডি থেকে আয়কর - কোনও কিছু নিয়ে আপনাকে চিন্তা করতে হবে না। আমাদের ভাল অভিজ্ঞতা আছে বাংলায়।'

জানা যাচ্ছে, প্রকাশিত অডিও ক্লিপে- এই চক্রের মূল মাথা হিসাবে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ (B. L. Santhosh)-এর নাম উঠে এসেছে। সেই অডিও ক্লিপের সূত্র ধরেই  বি এল সন্তোষকে জিজ্ঞাসবাদের জন্য তলব করেছে তেলেঙ্গানা পুলিশ।

সম্প্রতি, মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও (KCR) এক প্রেস কনফারেন্সে একটি ভিডিও দেখিয়ে দাবি করেন, তাঁর দলকে দুর্বল করার জন্য পিছন থেকে চক্রান্ত করছে বিজেপি (BJP)। এই 'চক্রান্তে' মদত দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কেসিআর দাবি করেন, তাঁর কাছে তিন ঘন্টার গোপন ক্যামেরার ফুটেজ রয়েছে, যার মধ্যে মাত্র পাঁচ মিনিট ভিডিও প্রকাশ করেছেন।

তবে, বিজেপি এই অভিযোগ উড়িয়ে জানিয়েছে- ভিডিওগুলি 'মঞ্চস্থ' এবং 'ভাড়া করা অভিনেতাদের সাথে রেকর্ডিং'।

বিজেপির সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ এবং TRS প্রধান চন্দ্রশেখর রাও
ধর্ষণ ও খুনে সাজাপ্রাপ্ত আসামী রাম রহিমের 'সৎসঙ্গ'-এ আনা হলো ৩০০ স্কুল পড়ুয়াকে!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in