কোভিড আক্রান্ত সোনিয়া গান্ধী, তবে ৮ জুন ইডি-র দপ্তরে হাজিরা দেবেন, জানাল কংগ্রেস

জাতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, "আমরা আগেই জানিয়েছি কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী পূর্বের কথা অনুযায়ী আগামী ৮ জুন ইডি-র দপ্তরে হাজিরা দেবেন।
কোভিড আক্রান্ত সোনিয়া গান্ধী, তবে ৮ জুন ইডি-র দপ্তরে হাজিরা দেবেন, জানাল কংগ্রেস
ফাইল চিত্র

করোনা আক্রান্ত কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী। কোভিড টেস্ট করার পর রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই নিজেকে সম্পূর্নভাবে আইসোলেশনে রেখেছেন সোনিয়া। তবে আগামী ৮ জুন ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় তিনি ইডি দপ্তরে হাজিরা দেবেন বলেই জানিয়েছে তাঁর দল।

এ প্রসঙ্গে প্রবীণ কংগ্রেস নেতা তথা বিশিষ্ট আইনজীবী রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা জানিয়েছেন গতকাল সন্ধ্যেবেলা থেকে সোনিয়া গান্ধীর হালকা জ্বর এবং বিভিন্ন কোভিড উপসর্গ হতে দেখা যাচ্ছিল। দ্রুত পরীক্ষা করার পর রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

জাতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, " আমরা আগেই জানিয়েছি কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী পূর্বের কথা অনুযায়ী আগামী ৮ জুন ইডি-র দপ্তরে হাজিরা দেবেন। এ বিষয়ে যদি আবার নতুন করে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সেক্ষেত্রে আমরা জানিয়ে দেব।"

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী এবং সাংসদ রাহুল গান্ধীকে অর্থ পাচারের অভিযোগে তলব করেছে ইডি। কংগ্রেস সভাপতিকে ৮ জুন হাজিরা দিতে বলা হলেও রাহুলকে জিজ্ঞাসাবাদের দিন ছিল আজ, ২ জুন (বৃহস্পতিবার)। কিন্তু কংগ্রেস নেতা এখন বিদেশে আছেন। তাই তিনি ৫ জুনের পর তারিখ চেয়েছেন ইডির কাছে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, যে মামলায় গান্ধীদের তলব করা হয়েছে তা ইয়াং ইন্ডিয়ান প্রাইভেট লিমিটেডের দ্বারা সংবাদপত্র পরিচালনাকারী অ্যাসোসিয়েটেড জার্নালস লিমিটেডের অধিগ্রহণে প্রতারণা, ষড়যন্ত্র এবং অপরাধমূলক বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগের সাথে সম্পর্কিত।

কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিংভি সম্প্রতি মিডিয়াকে বলেছেন যে মানি লন্ডারিং বা অর্থপাচারের কোনও প্রমাণ নেই গান্ধীদের বিরুদ্ধে। ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, আর্থিক তছরুপ মামলায় গান্ধীদের বয়ান রেকর্ড করা হবে। এ প্রসঙ্গে সিংভি আরও জানান, "কেন্দ্রীয় সরকার কংগ্রেসের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছড়াতে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার অপব্যবহার করছে। এটি মানি লন্ডারিংয়ের কেস যেখানে কোনও অর্থ জড়িত নেই। মামলাটি কার্ডের প্যাকেটের চেয়েও বেশি ফাঁপা। তবে আমরা এটির মুখোমুখি হব। আমরা ভয় পাই না। ... "

কংগ্রেসের অভিযোগ, মুদ্রাস্ফীতির মত একটি বাস্তব সমস্যা থেকে নজর ঘোরানোর জন্য কেন্দ্রীয় সরকার এইসব কাজ করছে। মিঃ সিংভি জানান, ২০১৫ সালে ইডির তরফে এই মামলাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সরকার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সরিয়ে নতুন কর্মকর্তাদের নিয়ে আসার পর পুনরায় এই মামলাটি চালু হয়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সম্প্রতি তদন্তের অংশ হিসাবে কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং পবন বনসালকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

কোভিড আক্রান্ত সোনিয়া গান্ধী, তবে ৮ জুন ইডি-র দপ্তরে হাজিরা দেবেন, জানাল কংগ্রেস
সনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীকে তলব করলো ইডি, ৮ জুনের মধ্যে দিতে হবে হাজিরা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in