Mumbai: মুম্বাই হিট অ্যান্ড রান মামলায় ৩ দিন পর গ্রেফতার শিন্ডেসেনা নেতার পুত্র মিহির শাহ

People's Reporter: দুর্ঘটনার পর মিহির তার বাবা রাজেশ শাহকে ফোন করে। তার বাবা তাকে চালকের জায়গায় বসার পরামর্শ দেন। সেই মতো তিনি স্টিয়ারিং ছেড়ে চালকের পাশের আসনে গিয়ে বসেছিলেন।
গ্রেফতার মিহির শাহ
গ্রেফতার মিহির শাহছবি - সংগৃহীত

ওরলির হিট অ্যান্ড রান মামলায় অবশেষে গ্রেফতার হল মূল অভিযুক্ত মিহির শাহ। দুর্ঘটনার তিনদিন পর মুম্বাই পুলিশ মিহিরকে গ্রেফতার করেছে। ৭ জুলাই দুর্ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল মিহির।

২৪ বছর বয়সী মিহির শিন্ডেসেনা শিবিরের নেতা রাজেশ শাহের পুত্র। দুর্ঘটনার পর রাজেশকে ওরলি পুলিশ গ্রেফতার করলেও সোমবার জামিনে মুক্তি পেয়ে যান তিনি। এরপর মঙ্গলবার মুম্বাই পুলিশ মিহিরকে গ্রেফতার করে।

রবিবার সকালে মুম্বাইয়ের ওরলির অ্যানি বেসান্ত রোডে একটি স্কুটারে ধাক্কা মারে মিহিরের বিএমডব্লুউ গাড়িটি। ওই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় কাবেরী নাখওয়া নামে এক মহিলার। চিকিৎসাধীনে রয়েছেন কাবেরীর স্বামী প্রদীপ।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই দিন সকালে গাড়িটি চালাচ্ছিলেন মিহির নিজেই। তাঁর পাশে যাত্রীর আসনে বসে ছিলেন গাড়ির চালক রাজঋষি বিদাওয়াত। দুর্ঘটনার পরে বান্দ্রা পূর্বের কালা নগরে গাড়িটি পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা গেছে, দুর্ঘটনার পর মিহির তার বাবা রাজেশ শাহকে ফোন করে। তার বাবা তাকে চালকের জায়গায় বসার পরামর্শ দেন। সেই মতো তিনি স্টিয়ারিং ছেড়ে চালকের পাশের আসনে গিয়ে বসেছিলেন। পুলিশ জানিয়েছে, ছেলেকে বাঁচাতে চালকের ওপর দোষ চাপানোর পরিকল্পনা ছিল রাজেশ শাহের। গাড়ির চালক এখনও পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

মিহির শাহের বিরুদ্ধে ভারতীয় ন্যায় সংহিতা অনুযায়ী ধারা ১০৫ (অপরাধমূলক হত্যাকাণ্ড), ২৮১ (বেপরোয়াভাবে এবং অবহেলা করে গাড়ি চালানো মানব জীবনকে বিপন্ন করে), ১২৫-বি (জীবন এবং ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বিপন্ন করে), ২৩৮, ৩২৪ (৪) (দুর্নীতি করা) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মোটর যান আইনের ১৮৪, ১৩৪-এ, ১৮৭ ধারার অধীনেও অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ।

গ্রেফতার মিহির শাহ
ANI vs Wikipedia: সংবাদসংস্থা ANI সম্পর্কে 'মানহানিকর বিবরণ' - উইকিপিডিয়াকে দিল্লি হাইকোর্টের নোটিশ
গ্রেফতার মিহির শাহ
Rahul Gandhi: ‘মণিপুরে এসে পরিস্থিতি দেখে যান', ইম্ফলে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীকে বার্তা রাহুলের

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in