Maharashtra: সাভারকার সম্পর্কে রাহুলের মন্তব্য, কংগ্রেসের সাথে সম্পর্ক ভাঙতে চলেছে শিবসেনা!

সাভারকর প্রসঙ্গে রাহুল বলেন, 'তিনি ব্রিটিশদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে চিঠি লিখেছিলেন। আমি পরিষ্কার জানি, তিনি ব্রিটিশদের সহায়তা করতেন। এইভাবেই তিনি মহাত্মা গান্ধীদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন।'
উদ্ধভ ঠাকরে ও রাহুল গান্ধী
উদ্ধভ ঠাকরে ও রাহুল গান্ধীগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

বিনায়ক দামোদর সাভারকর সম্পর্কে রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের জেরে উত্তাল মহারাষ্ট্র। পরিস্থিতি এমনই যে কংগ্রেসের সঙ্গ ছেড়ে 'মহা বিকাশ আঘাদি' (MVA) জোট থেকে বেরিয়ে আসার ইঙ্গিত দিয়েছে উদ্ধব ঠাকরের শিবসেনা গোষ্ঠী।

এই প্রসঙ্গে শুক্রবার, শিবসেনা সাংসদ অরবিন্দ সাওয়ান্ত জানিয়েছেন, 'এ নিয়ে উদ্ধব (ঠাকরে) জি একটি বিবৃতি দিতে পারেন। সকালে সঞ্জয় রাউত একটি বিবৃতি দিয়ে বলেছেন যে - আমরা MVA (মহা বিকাশ আঘাদি) জোট চালিয়ে যেতে পারি না। এটি দলের পক্ষ থেকে একটি কঠোর প্রতিক্রিয়া। আপনি আরও কী চান?'

গতকালই, রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের বিরোধিতা করে উদ্ধব ঠাকরে জানিয়েছেন, 'আমরা সাভারকরকে সম্মান করি। ব্রিটিশদের থেকে ছিনিয়ে নেওয়া স্বাধীনতা বজায় রাখতেই আমরা কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করেছিলাম।'

শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউতও বলেছেন, 'সাভারকরের ইস্যুটি আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ এবং আমরা তাঁর আদর্শে বিশ্বাস করি। এই বিষয়টি তাদের (কংগ্রেস) উত্থাপন করা উচিত হয়নি।'

বৃহস্পতিবার, মহারাষ্ট্রের আকোলা জেলার ওয়াদেগাঁওতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে রাহুল গান্ধী দাবি করেন, 'তিনি (সাভারকর) ব্রিটিশদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে চিঠি লিখেছিলেন। ভয় পেয়েই তিনি এটা করেছিলেন। আমি পরিষ্কার জানি, তিনি ব্রিটিশদের সহায়তা করতেন। তিনি পেনশনও নিয়েছিলেন। এইভাবেই তিনি মহাত্মা গান্ধী, সর্দার প্যাটেল, জওহরলাল নেহেরুদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন। বিশ্বাসভঙ্গ করেছিলেন দেশবাসীর।'

আর, রাহুল গান্ধীর এই মন্তব্যের জেরে কংগ্রেসের সঙ্গ ছাড়তে চলেছে উদ্ধব ঠাকরে (শিবসেনা) গোষ্ঠী। ভাঙতে চলেছে 'মহাজোট'।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচনের পর কংগ্রেস এবং শরদ পাওয়ারের জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টি (NCP)-র সাথে MVA জোট গঠন করে সরকার গড়েছিল শিবসেনা।

এই জোট থেকে বেরিয়ে এসে বিজেপির সঙ্গে মিলে সরকার গঠনের দাবি তুলেছিলেন বিদ্রোহী একনাথ সিন্ধে গোষ্ঠী। কিন্তু, সেসময় 'মহাজোট' না ভাঙার ফলে মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছাড়তে হয় উদ্ধব ঠাকরেকে। আর্থিক তছরুপ মামলায় ইডি'র হাতে গ্রেফতার হন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত। তারপর, মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে অনেক জল গড়িয়েছে।

তবে, লক্ষণীয় ভাবে গত ৯ নভেম্বর, জেল থেকে বের হওয়ার পর সুর বদল করেন সঞ্জয় রাউত। তাঁরই মুখে শোনা যায় বিজেপি নেতা তথা মহারাষ্ট্রের উপ-মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশের প্রশংসা।

শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন ঠাকরেপন্থী নেতা সঞ্জয় রাউত।

এরপরই সাভারকর সম্পর্কে রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের জেরে কংগ্রেসের সঙ্গ ত্যাগ করতে চাইছে ঠাকরের শিবসেনা।

উদ্ধভ ঠাকরে ও রাহুল গান্ধী
সাভারকার বিতর্কের মাঝেই কংগ্রেসের Bharat Jodo Yatra-য় রাহুলের পাশে গান্ধীজির প্রপৌত্র

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in