New Delhi Demolition Drive: দিল্লিতে বুলডোজার রাজ চালাচ্ছে পুরনিগম, প্রতিবাদে রাস্তায় বামেরা

বুধবার দিল্লির তিলক নগর, দ্বারকা, লোধি রোড, নাজফগড়, আয়া নগর সহ একাধিক জায়গায় উচ্ছেদ অভিযান চালছে। এই ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ এনেছে বামেরা।
New Delhi Demolition Drive: দিল্লিতে বুলডোজার রাজ চালাচ্ছে পুরনিগম, প্রতিবাদে রাস্তায় বামেরা
দিল্লিতে চলছে উচ্ছেদ অভিযানছবি - আই এ এন এস ট্যুইটার

দিল্লিতে বুলডোজার রাজ চালাচ্ছে বিজেপি পরিচালিত দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগম। বুধবার দিল্লির তিলক নগর, দ্বারকা, লোধি রোড, নাজফগড়, আয়া নগর সহ একাধিক জায়গায় উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগম। এই ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ এনে প্রতিবাদ জানিয়েছে বামেরা।

বুধবার সিপিআই(এম) পলিটব্যুরোর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই ঘটনা প্রসঙ্গে প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়েছে - "জাহাঙ্গীরপুরী এবং দিল্লির অন্যান্য এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান উত্তেজনা সৃষ্টি এবং সাম্প্রদায়িক মেরুকরণকে তীক্ষ্ণ করার ঘৃণ্য প্রচেষ্টার অংশ। বুলডোজারের রাজনীতি দরিদ্রতম মানুষ ও শ্রমজীবী পরিবারের আশ্রয়কে মাটিতে ফেলে দিয়েছে।"

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, "অবৈধ স্থাপনা ও দখলদারি ধ্বংস করার জন্য আইন ও পদ্ধতি রয়েছে। এই ধরনের বুলডোজার রাজনীতি দায়মুক্তির সাথে এগুলো লঙ্ঘন করে। বিচারবিভাগীয় হস্তক্ষেপ আপাতত জাহাঙ্গীরপুরীতে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ করে দিলেও বিভিন্ন জায়গায় এ ধরনের কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে। যে কোনো অবৈধ স্থাপনা অপসারণ অবশ্যই আইন অনুযায়ী হতে হবে এবং কঠোরভাবে নির্ধারিত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। দরিদ্রদের জন্য বিকল্প জীবিকা এবং আশ্রয় নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত সমস্ত ধ্বংসযজ্ঞ বন্ধ করা উচিত।"

উল্লেখ্য গণ-প্রতিরোধের জেরে সোমবার সকালে শাহীনবাগ থেকে বুলডোজার সরিয়ে নিয়েছিল পুর প্রশাসন। তবে, মঙ্গলবার থেকে আবার কোমর বেঁধে নামে দক্ষিণ দিল্লির পুর কর্তারা। দিক বদল করে তারা এদিন নিউ ফ্রেন্ডস কলোনি, মঙ্গলপুরিতে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে। সেই ধারা বুধবারও অব্যহত রেখেছে তাঁরা।

উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে যেতে বুধবার সকাল থেকেই দিল্লির তিলক নগর, দ্বারকা, লোধি রোড, নাজফগড়, আয়া নগরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। যানজটপূর্ণ এলাকায় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে পুলিশের একাংশ বহুতল বাড়ীর ছাদে অবস্থান করেছে। পাশাপাশি, ‘অবৈধ দখল’ সরিয়ে নিতে স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে আহ্বান জানাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন।

এই উচ্ছেদ অভিযান নিয়ে মুখ খলেছেন দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগমের (SMSC) সেন্ট্রাল জোনের চেয়ারম্যান রাজপাল সিং। তিনি এদিন বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যেই লোধি রোডে অবৈধ দখল শনাক্ত করেছি। আমরা কাউকে হয়রানি করতে চাই না। তবে সেখানে এমন কিছু জায়গা আছে যেখানে থেকে একটি ভ্যান বা বাসও যেতে পারে না। তাই এই জায়গা থেকে অবৈধ দখল সরাতে আমরা আমাদের অভিযান চালিয়ে যাব।’

এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ রাস্তায় নেমেছে একাধিক বাম সংগঠন। সিপিআই, সিপিআই (এম), সিপিআই (এমএল), ফরওয়ার্ড ব্লক, আরএসপির মতো বেশ কয়েকটি বাম দল যৌথভাবে দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজালের বাসভবনের কাছে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। রাজধানীর বুকে বুলডোজার চালানোর প্রতিবাদে তাঁরা স্লোগান তোলে। অনেকেই আবার প্ল্যাকার্ড হাতে দিল্লিতে ‘সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা’ ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য কেন্দ্র এবং দিল্লি সরকারকে অভিযুক্ত করেছেন।

এদিন অল ইন্ডিয়া কিষাণ মহাসভার (AIKM) সম্পাদক পুরুষোত্তম মিশ্র সংবাদ সংস্থা আইএএনএস-কে জানিয়েছেন, ‘দেশের গরীব মানুষদের উপর বুলডোজার চালানো হচ্ছে। দখল উচ্ছেদের নামে তাঁদের উপর আক্রমণ শানানো হচ্ছে। আসলে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে দেশকে বিভক্ত করতে এবং প্রকৃত ইস্যু থেকে জনগণের দৃষ্টি সরিয়ে নিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে সরকার।’ একইসঙ্গে তিনি বুলডোজার অভিযানের বিরুদ্ধে সারাদেশে প্রতিবাদ চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন।

- with inputs from IANS

দিল্লিতে চলছে উচ্ছেদ অভিযান
Jahangirpuri: জাহাঙ্গীরপুরী দাঙ্গায় অভিযুক্তের সাংবাদিক বৈঠক, পুলিশের সঙ্গে ভিডিও প্রকাশ!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.