Kerala: তরুণ প্রজন্মের কাছে বিবাহ এখন 'আতঙ্ক' - মন্তব্য কেরালা হাইকোর্টের

বেঞ্চের পক্ষ থেকে বলা হয়, বর্তমানে বিবাহ যেন পণ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। তরুণ প্রজন্ম ওয়াইফ (Wife) শব্দটিকে ‘ওরি ইনভাইটেড ফর এভার’ বলে মনে করছে। কিন্তু আগে তা ‘ওয়াইজ ইনভেস্টমেন্ট ফর এভার’ বলেই ভাবা হত।
তরুণ প্রজন্মের কাছে বিবাহ এখন 'আতঙ্ক' - মন্তব্য কেরালা হাইকোর্টের
তরুণ প্রজন্মের কাছে বিবাহ এখন 'আতঙ্ক' - মন্তব্য কেরালা হাইকোর্টেরফাইল ছবি

বিবাহ বিচ্ছেদের রায় দিতে গিয়ে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করল কেরালা হাইকোর্ট। হাইকোর্টের পর্যবেক্ষণ, নতুন প্রজন্ম বিবাহকে আতঙ্কের চোখে দেখছেন। বর্তমানে 'ওয়াইফ' শব্দটির ভুল ব্যাখ্যাও করছেন তরুণ প্রজন্ম।

কেরালা হাইকোর্টে ৫১ বছর বয়সী এক ব্যক্তির বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পর্কিত একটি মামলার শুনানি চলছিল। ব্যক্তির বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন খারিজ করে দেয় বিচারপতি মহম্মদ মুস্তাক এবং বিচারপতি সোফি টমাসের ডিভিশন বেঞ্চ। বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ - বর্তমানে বিবাহ যেন পণ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্যবহার করে ছুঁড়ে ফেলে দিলেই দায়িত্ব শেষ। বর্তমান প্রজন্মের কাছে বিয়ে যেন আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। তাই তাঁরা লিভ-ইনের দিকে বেশি ঝুঁকছে। তরুণ প্রজন্ম ওয়াইফ (WIFE) শব্দটিকে ‘Worry Invited For Ever’ বলে মনে করছে। কিন্তু আগে তা ‘Wise Investment For Ever' ভাবা হত।

উল্লেখ্য, কেরালার আলাপ্পুঝা জেলার এই দম্পতির ২০০৯ সালে বিয়ে হয়। পরে তাঁরা সৌদি আরবে থাকতে শুরু করেন। ২০১৮ সালে ঐ ব্যক্তি আদালতে স্ত্রীর বিরুদ্ধে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেন। জানা গেছে ২০১৭ সালে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়ান ওই ব্যক্তি। তাই বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেন তিনি। কিন্তু তাঁদের তিন সন্তানের কথা ভেবেই স্ত্রী বিবাহ বিচ্ছেদে রাজি হননি।

এরপর স্ত্রী তাঁর ওপর অত্যাচার করেন, এই অভিযোগ তুলে ফের মামলা দায়ের করেন তিনি। যদিও ব্যক্তিটির মা নিজের পুত্রবধূকে সমর্থন করেন। সব কিছু বিবেচনা করে আদালত বিচ্ছেদের আবেদন খারিজ করে দেয়।

আদালতের তরফ থেকে বলা হয়, খ্রিস্টান বিয়ের ক্ষেত্রে বিবাহ বিচ্ছেদ আইন, ১৮৬৯ অনুযায়ী যেহেতু স্বামী তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে কোনও অপরাধের প্রমাণ দিতে পারেননি তাই আবেদন খারিজ করা হল। বিচারপতি সোফি থমাস বলেন, ‘কেরালা ঈশ্বরের দেশ হিসেবে পরিচিত। এক সময় পারিবারিক বন্ধনের জন্যও কেরালা জনপ্রিয় ছিল। কিন্তু বর্তমান প্রজন্মে বিবাহ বিচ্ছেদ বাড়ছে। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক এর জন্য যথেষ্ট দায়ী।'

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in