শাহের ডাকা সন্ত্রাসবাদ বিরোধী বৈঠকে যোগ দিতে নারাজ অনেক দেশ

আগামী ১৮-১৯ নভেম্বর দিল্লিতে তৃতীয় NMFT সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। সেই উপলক্ষ্যে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে যাবতীয় আয়োজন করা হচ্ছে।
অমিত শাহ
অমিত শাহ ফাইল ছবি

নির্বাচন থেকে শুরু করে FIFA-বিশ্বকাপ ২০২২, নানা রকম কারণে সন্ত্রাস বিরোধী সভায় উপস্থিত থাকতে পারবে না বলে জানিয়েছে বিশ্বের ১৪ টি দেশ। আগামী সপ্তাহে দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ বিরোধী ( No Money For Terror) শীর্ষক সম্মেলন।

মূলত সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে অর্থ জোগান দেওয়ার প্রক্রিয়া বন্ধ করতেই এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে বলে সূত্রের খবর। আগামী ১৮-১৯ নভেম্বর তৃতীয় NMFT সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। সেই উপলক্ষ্যে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে যাবতীয় আয়োজন করা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত ওই সভায় উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

এক কর্মকর্তার কথায়, "প্রথম NMFT সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৮ সালের ফ্রান্সের প্যারিসে। দ্বিতীয়টি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে। সময়সূচী অনুসারে সিদ্ধান্ত হয়েছিল, ২০২০ সালে এই সম্মেলনের আয়োজন করবে ভারত। কিন্তু কোভিড অতিমারীর কারণে সেই পরিকল্পনা বাতিল করা হয়। এবার এই সম্মেলন দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হবে।"

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রের খবর, বিশ্বের মোট ৮৭টি দেশ এবং ২৬টি বহুপাক্ষিক সংস্থাকে এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ভারত। যার মধ্যে বেশ কিছু দেশের সম্মেলনে যোগদানের ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা রয়েছে। এখনও পর্যন্ত প্রায় ৫০ টি দেশ সম্মেলনে যোগদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

যে ১৪ টি দেশ বৈধ কারণ দেখিয়ে তাদের অপারগতা স্বীকার করেছে তাদের মধ্যে রয়েছে কাতার। আগামী ২০ নভেম্বর থেকে ফুটবল বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার কারণে এই সম্মেলনে তারা প্রতিনিধিত্ব করতে পারবে না বলেই জানিয়েছে। একইভাবে, মালয়েশিয়া এবং ইরাক নির্বাচনের কারণে NMFT সম্মেলনে প্রতিনিধিত্ব করতে পারবে না বলে জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স’ (এফএটিএফ)-এর ধূসর তালিকা (Grey List) থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানের নাম। সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার অভিযোগে গত চার বছর ধরে এফএটিএফ-র ধূসর তালিকায় ছিল পাকিস্তানের নাম।

কিন্তু গত এক বছরে ইসলামাবাদ সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে আর্থিক সহায়তা রুখতে সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করায় রাষ্ট্রপুঞ্জ, আন্তর্জাতিক অর্থভাণ্ডার (আইএমএফ), বিশ্ব ব্যাঙ্ক, ‘এগমন্ট গ্রুপ অফ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট’-সহ বিভিন্ন সংস্থা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু এই সিদ্ধান্তে নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে নয়াদিল্লি। NMFT সম্মেলনে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে বলে সূত্রের খবর।

অমিত শাহ
মোদীর সফরের মাঝেই বিশাখাপত্তনম স্টিল প্ল্যান্ট বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ বামেদের, গ্রেফতার ৫০

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in