Maharastra: ৭২ ঘন্টার মধ্যে ফের 'মিথ্যা' মামলা পুলিশের, এবার পদত্যাগের হুমকি বিধায়ক জিতেন্দ্রর

গত শুক্রবার, প্রেক্ষাগৃহে ঢুকে মরাঠি সিনেমা ‘হর হর মহাদেব’-এর প্রদর্শন জোর করে বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন এনসিপি বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ।
এনসিপি (NCP) বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ
এনসিপি (NCP) বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদছবি সংগৃহীত

‘৭২ ঘণ্টার মধ্যে আমার বিরুদ্ধে দুটি মিথ্যা মামলা দায়ের হয়েছে। আমি বিধায়ক পদ থেকে পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ সোমবার, এক টুইট বার্তায় এমনই দাবি করেছেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা এনসিপি (NCP) বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ (Jitendra Awhad)।

গত শুক্রবার, প্রেক্ষাগৃহে ঢুকে মরাঠি সিনেমা ‘হর হর মহাদেব’-এর প্রদর্শন জোর করে বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন এনসিপি বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ। তারপর, জামিন পেলেও, আবার তাঁর নামে নতুন মামলা দায়ের হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, গতকাল (১৩ নভেম্বর), মুম্বরায় (Mumbra) একটি সেতুর উদ্বোধনের অনুষ্ঠানের মাঝে এক মহিলাকে প্রকাশ্যে জোরপূর্বক (ধাক্কা দিয়ে) সরিয়ে দিয়েছিলেন এনসিপি-র বিধায়ক জিতেন্দ্র৷ এরপর, সংশ্লিষ্ট মহিলাকে ‘লাঞ্ছনা’র অভিযোগে জিতেন্দ্রর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় মামলা দায়ের করেছে একনাথ সিন্ধে সরকারের পুলিশ।

এই ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন জিতেন্দ্র। থানের মুম্বরা-কালওয়া আসনের বিধায়ক জিতেন্দ্র মারাঠি ভাষায় টুইটারে লিখেছেন, ‘আমি এই পুলিশি বর্বরতার বিরুদ্ধে লড়াই করব। গণতন্ত্রের এই হত্যাকে আমি সহজভাবে নিতে পারি না।’

এর আগে মহিলাটি অভিযোগ করেছেন, সেতু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী একনাথ সিন্ধের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু, বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ তাঁকে ‘জোর করে ধাক্কা দিয়েছিলেন’।

এদিকে, এনসিপি (NCP) বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ-এর উপর নতুন মামলা দায়ের হওয়ায়, মুম্বরা থানার সামনে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছে NCP কর্মীরা।  

এর আগে জোরপূর্বক 'হর হর মহাদেব'-এর প্রদর্শন বন্ধ করার দায়ে, গত শুক্রবার গ্রেপ্তার করা হয়েছিল জিতেন্দ্রকে। তবে, শনিবার তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৩ এবং ৫০৪ নম্বর ধারায় মামলা দায়ের হয়েছিল।

একনাথ সিন্ধে ও বিজেপি জোট সরকারকে নিশানা করে এনসিপি বিধায়ক অভিযোগ করেন, তাঁকে গ্রেপ্তার করার আদেশ ‘উচ্চ কর্তৃপক্ষের’ কাছ থেকে এসেছে।

একইসঙ্গে, তিনি দাবি করেন, ‘হর হর মহাদেব’ (Har Har Mahadev) সিনেমাটিতে মারাঠা ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছে। তাই এই ধরনের সিনেমা কখনওই মহারাষ্ট্রে মুক্তি পেতে পারে না।

তাঁর (NCP) দলের নেতা নেত্রী ও সাংসদ সুপ্রিয়া সুলেও (MP Supriya Sule) অভিযোগ করেছেন, পুলিশকে 'উপর থেকে চাপ' দেওয়া হচ্ছে।

একইসঙ্গে, সিন্ধে সরকারের সমালোচনা করেছিলেন শিবসেনা (উদ্ধব বালাসাহেব ঠাকরে) নেতা আদিত্য ঠাকরে (Aaditya Thackeray)। তিনি বলেছিলেন, 'জিতেন্দ্র আওহাদ সঠিক কাজ করেছেন। আমরা তাঁর সঙ্গে জেলে যেতে প্রস্তুত।'

এনসিপি (NCP) বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ
Delhi: দলেরই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে নথি চুরির অভিযোগ, টাওয়ারে উঠে প্রতিবাদ AAP কাউন্সিলরের
এনসিপি (NCP) বিধায়ক জিতেন্দ্র আওহাদ
শুধু CPI(M) নয়, আমাদেরও সাধারণ সম্পাদক ইয়েচুরি - দাবি কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in