পুরুষদের বাড়িতেই মদ খেতে বলুন, আসক্তি কমাতে স্ত্রীদের নিদান মধ্যপ্রদেশের বিজেপি নেতার

People's Reporter: নারায়ণ সিং কুশওয়াহা বলেন, মা-বোনেরা যদি স্বামীদের মদ্যপান থেকে বিরত রাখতে চান, তা হলে প্রথমে তাঁদের বাইরে গিয়ে মদ খাওয়া বন্ধ করুন।
নারায়ণ সিং কুশওয়াহা
নারায়ণ সিং কুশওয়াহাছবি - সংগৃহীত

পুরুষদের মদের প্রতি আসক্তি কমাতে কী করণীয় বাড়ির স্ত্রী-কন্যাদের? এবার নিদান দিলেন বিজেপি নেতা তথা মধ্যপ্রদেশের সামাজিক ন্যায়বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রী নারায়ণ সিং কুশওয়াহা। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক তৈরি হয়েছে মধ্যপ্রদেশ রাজনীতিতে।

শুক্রবার ভোপালে মাদক বিরোধী একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন নারায়ণ সিং কুশওয়াহা। সেখানে মদ নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘‘মা-বোনেরা যদি স্বামীদের মদ্যপান থেকে বিরত রাখতে চান, তা হলে প্রথমে তাঁদের বাইরে গিয়ে মদ খাওয়া বন্ধ করুন। তার বদলে বাড়িতে মদ নিয়ে এসে আপনার সামনে খেতে বলুন। পুরুষেরা যদি পরিবারের সামনে বসে মদ খান, তা হলে ধীরে ধীরে তাঁদের মদ খাওয়া কমে যাবে। শেষমেশ স্ত্রী এবং সন্তানদের সামনে মদ খেতে তাঁরা লজ্জাবোধ করবেন।’’

মন্ত্রী যোগ করেন, “এ ছাড়াও স্বামীদের মনে করিয়ে দিতে হবে যে, সন্তানেরা তাঁদের অনুসরণ করে মদ্যপান শুরু করতে পারে। এই কারণেও স্বামীরা মদ খাওয়া ছেড়ে দেবেন।’’

পাশাপাশি, মন্ত্রী বলেন মধ্যপ্রদেশে মদ নিষিদ্ধ বিবেচনাধীনে রয়েছে। তিনি জানান, "আমি আগের মেয়াদে মদ নিষিদ্ধ করার পরামর্শ দিয়েছিলাম। কিন্তু যে রাজ্যগুলিতে মদ নিষিদ্ধ করা হয়েছে, সেখানেও তা দেখা যায়। রাজ্যে মদ নিষিদ্ধ করার বিষয়টি সরকারী পর্যায়ে বিবেচনাধীন রয়েছে। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। ভবিষ্যতে মদ নিষিদ্ধ করা যেতে পারে জনসচেতনতার মাধ্যমে।"

মন্ত্রীর এহেন মন্তব্যে ইতিমধ্যেই সমালোচনা শুরু হয়েছে মধ্যপ্রদেশের রাজনীতিতে। মধ্যপ্রদেশ প্রদেশ কংগ্রেসের মিডিয়া সেলের সভাপতি মুকেশ নায়েক বলেন, ‘‘মন্ত্রীর উদ্দেশ্য ঠিক, কিন্তু বোঝানোর পদ্ধতি ভুল। বাড়িতে মদ খেলে অশান্তি হতে পারে। গার্হস্থ্য হিংসার ঘটনা বাড়তে পারে। মন্ত্রীর উচিত ছিল মানুষকে সঠিক উপদেশ দেওয়া।’’

নারায়ণ সিং কুশওয়াহা
SFI: নিট-নেট দুর্নীতির প্রতিবাদে ৪ জুলাই দেশজুড়ে ছাত্র ধর্মঘটের ডাক এসএফআই'র
নারায়ণ সিং কুশওয়াহা
Bihar: 'ডবল ইঞ্জিন সরকারের দ্বিগুণ ক্ষমতা', বিহারে ৯ দিনে ৫ সেতু ভাঙায় নীতিশ সরকারকে নিশানা তেজস্বীর

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in