মন্ত্রিত্ব না পেয়ে ক্ষুব্ধ কর্ণাটকের সাতবারের BJP সাংসদ, প্রকাশ্যে দলকে ‘দলিত-বিরোধী’ অ্যাখ্যা

People's Reporter: জিগাজিনাগি বলেন, "সমগ্র দক্ষিণ ভারতে আমিই একমাত্র দলিত নেতা যিনি টানা সাতটি নির্বাচনে জিতেছে। সমস্ত উচ্চবর্ণের সাংসদরা মন্ত্রী হয়েছেন। দলিতরা কি বিজেপিকে সমর্থন করেনি?”
বিজেপি সাংসদ রমেশ জিগাজিনাগি
বিজেপি সাংসদ রমেশ জিগাজিনাগিফাইল ছবি

প্রকাশ্যে দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দলকে ‘দলিত-বিরোধী’ তকমা দিলেন কর্ণাটকের বিজেপি সাংসদ রমেশ জিগাজিনাগি। জানা গেছে সাত বার নির্বাচিত হওয়ার পরও জিগাজিনাগিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী না করায় দলের উপর বিরক্ত তিনি।

সংবাদমাধ্যমের সামনে বিশিষ্ট দলিত নেতা জিগাজিনাগি বলেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় উচ্চবর্ণের সাংসদদের জায়গা দেওয়া হয়েছে। সেখানে দলিতদের প্রাধান্য নেই।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মঙ্গলবার বেঙ্গালুরু থেকে ৫২০ কিমি দূরে বিজয়পুরাতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জিগাজিনাগি বলেন, “আমার মন্ত্রিসভার সদস্য হওয়ার প্রয়োজন নেই। আমার জনগণের সমর্থন প্রয়োজন। নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর আমি যখন এলাকায় যাই আমাকে লোকজন গালি দেন। তাঁরা আমাকে মনে করিয়ে দেন বিজেপি দলিত-বিরোধী। এই দল আগে দলিতদের নিয়ে কী কী মন্তব্য করেছে সেগুলো বলেন আমাকে। আমার এই দলে যোগ দেওয়া উচিত হয়নি বলে মনে করেন তাঁরা। আমি আমার জন্য মন্ত্রিত্ব চাই না, জনগণের জন্য প্রয়োজন। এখানে আমার উপর খুব চাপ আছে এই নিয়ে।“

কর্ণাটক থেকে মোট সাতবার জয়ী হয়েছেন রমেশ জিগাজিনাগি - তিনবার চিক্কোড়ি থেকে এবং বিজাপুর থেকে চারবার। সংবাদমাধ্যমের সামনে তিনি আরও বলেন, “এটা ন্যায় না অন্যায় বলুন আমাকে। সমগ্র দক্ষিণ ভারতে আমিই একমাত্র দলিত নেতা যিনি টানা সাতটি নির্বাচনে জিতেছে। সমস্ত উচ্চবর্ণের সাংসদরা মন্ত্রী হয়েছেন। দলিতরা কি বিজেপিকে সমর্থন করেনি? এটা (ক্যাবিনেট বারথ বরাদ্দ না হওয়া) আমাকে অনেক কষ্ট দিয়েছে।”

৭২ বছরের জিগাজিনাগি প্রথম ১৯৯৮ সালে লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হন। এরপর থেকে প্রতিটি নির্বাচনে জিতেছেন তিনি।

জিগাজিনাগির এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করে বিজেপিকে আক্রমণ শুরু করেছে কংগ্রেস। কর্ণাটক কংগ্রেসের অফিসিয়াল এক্স হ্যান্ডেলে এই মন্তব্যের ভিডিও দিয়ে লেখা হয়, বিজেপির কাছ থেকে দলিতপন্থী রাজনীতি আশা করা যায় না।

বিজেপি সাংসদ রমেশ জিগাজিনাগি
Rahul Gandhi: ‘মণিপুরে এসে পরিস্থিতি দেখে যান', ইম্ফলে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীকে বার্তা রাহুলের
বিজেপি সাংসদ রমেশ জিগাজিনাগি
ANI vs Wikipedia: সংবাদসংস্থা ANI সম্পর্কে 'মানহানিকর বিবরণ' - উইকিপিডিয়াকে দিল্লি হাইকোর্টের নোটিশ

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in