Karnataka: কংগ্রেসের লাগাতার আক্রমণের মাঝেই বিশিষ্ট বিজেপি নেতার দিল্লি যাত্রায় জল্পনা

মুখ্যমন্ত্রী বাসভরাজ বোম্মাইয়ের প্রধান "প্রতিদ্বন্দ্বী" হিসেবে তাঁর এই দিল্লি সফর যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। শুক্রবার দুপুরে স্টার এয়ারলাইন্সের বিমানে হুবলি ছেড়েছেন সেট্টার।
Karnataka: কংগ্রেসের লাগাতার আক্রমণের মাঝেই বিশিষ্ট বিজেপি নেতার দিল্লি যাত্রায় জল্পনা
কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা জগদীশ সেট্টারফাইল ছবি ডেকান হেরাল্ডের সৌজন্যে

কর্ণাটকে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) বিরুদ্ধে বিরোধী দল কংগ্রেসের সর্বাত্মক আক্রমণের মধ্যে, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং দলের বিশিষ্ট নেতা জগদীশ সেট্টারের দিল্লি সফর ঘিরে রাজ্যের রাজনীতিতে জল্পনা বাড়লো। বিজেপি সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে সেট্টার রাজ্যের উন্নয়ন প্রসঙ্গে আলোচনা করতে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সাথে দেখা করবেন।

মুখ্যমন্ত্রী বাসভরাজ বোম্মাইয়ের প্রধান "প্রতিদ্বন্দ্বী" হিসেবে তাঁর এই দিল্লি সফর যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরে স্টার এয়ারলাইন্সের হুবলি-গাজিয়াবাদ বিমানে হুবলি ছেড়েছেন সেট্টার। যদিও তাঁর অফিস এই সফরের কারণ সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করেনি।

উল্লেখ্য দুদিনের দিল্লি সফর থেকে বৃহস্পতিবারই রাজ্যে ফিরেছেন মুখ্যমন্ত্রী বোম্মাই। তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করেছেন। জাতীয় রাজধানী সফরকে "সফল" বলে অভিহিত করে, তিনি প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাথে তার বৈঠককে ‘কার্যকরী’ বলে বর্ণনা করেছেন।

সম্প্রতি রাজ্য প্রশাসনের পালাবদলে সেট্টার বোম্মাইয়ের মন্ত্রিসভা থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নেন এবং বলেন তিনি তার জুনিয়রদের অধীনে কাজ করতে পারবেন না। তিনি ঘনিষ্ঠ মহলে শীর্ষ পদের জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বোম্মাইকে বেছে নেওয়ায় তাঁর অসন্তোষও প্রকাশ করেছিলেন।

কংগ্রেস সভাপতি ডি কে শিবকুমার জানিয়েছেন, বিটকয়েন কেলেঙ্কারি নিয়ে দল চুপ করে বসে থাকবে না। তিনি বলেন, "প্রধানমন্ত্রী যদি বোম্মাইকে অভিযোগ উপেক্ষা করতে বলেন, আমরা তা ছাড়ব না। আমরা এই ইস্যু নিয়ে লড়াই করবো।"

সম্প্রতি কংগ্রেস বিধায়ক প্রিয়াঙ্ক খড়গে বিজেপিকে আক্রমণ করার জন্য সাংবাদিক সম্মেলন ডেকেছিলেন। তিনি বিটকয়েন কেলেঙ্কারি নিয়ে পাঁচটি বিষয় উত্থাপন করে বিজেপির কাছে উত্তর চান।

খড়গে বলেন, প্রধান অভিযুক্ত শ্রীকৃষ্ণ রমেশ ওরফে শ্রীকি বেঙ্গালুরুর সাইবার ক্রাইম স্টেশনের পুলিশ আধিকারিকের কাছে বলেছিলেন যে তিনি ৫ হাজার বিটকয়েন হ্যাক করেছেন। "যার মূল্য প্রায় ২,৫০০ কোটি টাকা। এই বিটকয়েনের কতগুলি তিনি ব্যবহার করেছেন এবং কতগুলি তিনি বিতরণ করেছেন?" প্রশ্ন করেন খড়গে।

খড়গে আরও জানতে চান, "কেন বিজেপি তখন এই মামলায় ইন্টারপোল বা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের সাহায্য নেয়নি? কেন ইডি এবং ইন্টারপোলকে এই ঘটনা জানাতে পাঁচ মাস দেরি করা হয়েছিল?" তিনি বলেন, কোনো তদন্ত ছাড়াই মামলায় চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।

খড়গে আরও বলেন, বিটকয়েন কেলেঙ্কারিটি ছিল দেশের প্রথম প্রযুক্তিগত কেলেঙ্কারি, এবং বিজেপি মামলাটি বন্ধ করে দেবার চেষ্টা করছে।

কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা জগদীশ সেট্টার
Karnataka: বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে নতুন মোড়, ফের গ্রেপ্তার মূল অভিযুক্ত

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in