Gujarat: কুসংস্কারের বশে ধাতব শিকল দিয়ে নিজেকেই মারছেন মন্ত্রী! তীব্র নিন্দায় কংগ্রেস

ভিডিওতে ধাতব শিকল দিয়ে নিজের পিঠে আঘাত করতে দেখা যাচ্ছে মন্ত্রীকে। তাঁর আশেপাশে অনেক লোক বসে রয়েছেন। মন্ত্রী যখন নিজেকে আঘাত করছিলেন তখন আশেপাশে থাকা অনেকে তাঁর ওপর টাকা ছড়াচ্ছিলেন।
Gujarat: কুসংস্কারের বশে ধাতব শিকল দিয়ে নিজেকেই মারছেন মন্ত্রী! তীব্র নিন্দায় কংগ্রেস
চেন দিয়ে নিজেকে আঘাত করছেন মন্ত্রীছবি সংগৃহীত

ধর্মীয় অনুষ্ঠানে ধাতব শিকল দিয়ে নিজেই নিজেকে চাবুক মারছেন গুজরাটের মন্ত্রী অরবিন্দ রায়ানী! মন্ত্রীর এমন দৃশ্যের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই প্রশ্ন উঠছে এমন কেনো করছেন তিনি? কংগ্রেসের অভিযোগ, কুসংস্কারের বশবর্তী হয়ে এবং তা আরও ছড়িয়ে দিতে এমন করেছেন মন্ত্রী। যদিও বিজেপি দলীয় মন্ত্রীর পাশে দাঁড়িয়ে এই ঘটনাকে 'মনের বিশ্বাস' বলে ব্যাখ্যা করেছে।

শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজরাটের পরিবহন, বিমান এবং পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অরবিন্দ রায়ানির বেশ কয়েকটি ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে তাঁকে বেশ কয়েকটি ধাতব শিকল একত্র করে, তা দিয়ে নিজের পিঠে আঘাত করতে দেখা যাচ্ছে। তাঁর আশেপাশে অনেক লোক বসে রয়েছেন। মন্ত্রী যখন নিজেকে আঘাত করছিলেন তখন আশেপাশে থাকা অনেকে তাঁর ওপর টাকা ছড়াচ্ছিলেন।

এই ভিডিও ভাইরাল হতেই কুসংস্কার ছড়ানোর অভিযোগে রাজকোট (পূর্ব)-এর বিধায়ককে তীব্র আক্রমণ করেছেন গুজরাট কংগ্রেসের মুখপাত্র মণীশ দোশি। তিনি বলেছেন, "রায়ানী মন্ত্রী হয়েও এমন অবৈজ্ঞানিক কাজের মাধ্যমে কুসংস্কার ছড়াচ্ছেন। একজন ভূতের রাজার মতো কুসংস্কার ছড়াচ্ছেন। এটা দুর্ভাগ্যজনক যে এই ধরনের লোকেরা গুজরাট সরকারের মন্ত্রী হিসাবে জনগণের জন্য কাজ করছেন।"

বিতর্কের মুখে রায়ানী জানিয়েছেন, তিনি কোনো কুসংস্কার ছাড়াননি। তিনি কেবল নিজের সম্প্রদায়ের ঐতিহ্য অনুসরণ করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাঁর নিজের গ্রাম গুন্ডাতে তাঁদের রায়ানী সম্প্রদায়ের দেবতাকে শ্রদ্ধা জানাতে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। যেহেতু ১৬ বছর বয়সে থেকে তিনি একজন ভুভা ( রায়ানী সম্প্রদায়ের ধর্মীয় নেতা)। তাঁকে ভুভা হিসেবে এখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তাই সেখানে নিজের সম্প্রদায়ের কিছু ঐতিহ্য পালন করেছেন তিনি।

চেন দিয়ে নিজেকে আঘাত করছেন মন্ত্রী
Adani University: আদানি গ্রুপের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে অনুমোদন গুজরাট বিধানসভায়

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in